আপডেটঃ
কক্সবাজার-রামুর উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকাকে জয়ী করুন-এমপি কমলঘুষের টাকা সহ চমেক এর কর্মচারীকে হাতেনাতে আটক করেছে দুদক৭নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী জামশেদ’র মনোনয়নপত্র জমাঢাকায় ইয়াবার চালান নিয়ে উখিয়া কলেজের ছাত্রসহ গ্রেফতার ৪সিইসির সঙ্গে বৈঠকে বিএনপির প্রতিনিধি দলকর্ণফুলীতে মোটর সাইকেলের বিরুদ্ধে পুলিশী অভিযানচট্টগ্রাম হোটেলে জামায়াত-শিবির সন্দেহে আড়াইশ জন আটকব্রাজিল নাকি আর্জেন্টিনা?সেই জার্মানিই এখন শূন্য থেকে শীর্ষে!রোহিঙ্গাদের দেখতে আসছেন জাতিসংঘ মহাসচিব ও বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্টচকরিয়ায় বড়শি নিয়ে মাছ ধরতে গিয়ে শিশুর মৃত্যুপৌরবাসীর ভালবাসায় সিক্ত নৌকার প্রার্থী মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যানকক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার- ১৩কক্সবাজার আন্চলিক পাসপোর্ট অফিসে বদলীল আদেশ অমান্য করে বহাল আছে সত্যব্রত শর্মাচকরিয়ায় বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে দর্শনার্থী বাড়তি বিনোদনে যোগ হয়েছে আকর্ষনীয় তিন জোড়া আফ্রিকান জেব্রা

রোজায় পানিশূন্যতা রোধে যা করণীয়

rooja.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ রোজায় অন্য সময়ের চেয়ে একটি বেশি পানি পান করতে হয়। কেননা দীর্ঘ সময় পর্যন্ত যে কোনো পানাহার থেকে বিরত থাকতে হয়। আর তাই ইফতারি আর সেহরি পর্যন্ত বয়স, ওজন আর উচ্চতা ভেদে দৈনিক ১২ গ্লাস পানি পান করা প্রয়োজন।

রোজার সময় অনেকেই পানিশূন্যতার সমস্যায় ভোগেন। পানি শূন্যতার সমস্যা সমাধানে কিছু বিষয় মেনে চলা জরুরি।

রোজায় অতিরিক্ত লবণাক্ত খাবার বর্জন করা প্রয়োজন। অতিরিক্ত লবণ দেহ থেকে পানি শুষে নিয়ে দেহের পানির চাহিদা বাড়িয়ে দেয়।

Re-hydrating মিনারেল তথা K+ যুক্ত খাবার সেহরি আর ইফতারে অবশ্যই অন্তর্ভুক্ত থাকতে হবে। এসকল খাবার আমাদের দেহ থেকে পানি স্বল্পতা দূরীকরণে বিশেষ ভূমিকা রাখে। এজাতীয় খাবারগুলো হলো খেজুর, আম, কলা ইত্যাদি।

পানি স্বল্পতা রোধ করতে অবশ্যই সেহরিতে চা-কফি পান করা বর্জন করতে হবে। এজাতীয় পানীয় আমাদের শরীরে di-uretics হিসেবে কাজ করে। ফলে আমাদের দেহের পানির চাহিদা বেড়ে যায়।

প্রতিদিন অবশ্যই সুষমজাতীয় খাবার খেতে হবে। পুষ্টিকর সুষম খাবার আমাদের শরীর ভালো রাখতে এবং শরীরের পানির চাহিদা পূরণে সাহায্য করে।

রোজায় অতিরিক্ত মিষ্টিজাতীয় খাবার আমাদের শরীরে ইনসুলিনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। তাই এজাতীয় খাবার বর্জন করাই শ্রেয়।

রমজান মাসে অবশ্যই অতিরিক্ত তেলে ভাজা ও অতিরিক্ত মসলাযুক্ত খাবার পরিহার করতে হবে। কারণ এজাতীয় খাবার আমাদের পরিপাক ক্রিয়ায় বাঁধা প্রদান করে।

Top