আপডেটঃ
শেখ হাসিনার গুডবুক ও দলীয় হাই কমান্ডের তরুণ তালিকায় যারানজিব আমার রাজনৈতিক বাগানের প্রথম ফুটন্ত ফুল- মেয়র মুজিবুর রহমাননাইক্ষ্যংছ‌ড়ি‌তে ডাকাত আনোয়ার বলি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মুক্তগণমাধ্যমের জন্য বড় বাধা হয়ে দাঁড়াবে’শহীদ জাফর মাল্টিডিসিপ্লিনারী একাডেমিক ভবনের উদ্বোধনসরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনজাতিসংঘ অধিবেশনে যোগ দিতে ঢাকা ছাড়লেন প্রধানমন্ত্রীভারতকে মাত্র ১৭৪ রানের চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশেরবেনাপোল সীমান্তে অস্ত্র-গুলি মাদকদ্রব্য সহ আটক ১আগামী মনোনয়নে নেত্রীর গুডবুক ও দলীয় হাই কমান্ডের তালিকায় যারাকক্সবাজারে হারিয়ে যাওয়া ব্যাগ ফিরিয়ে দিলেন টমটম চালককক্সবাজারে ইপসা’র নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ক প্রশিক্ষণ সভা অনুষ্ঠিতমিডিয়ার হাত বেঁধে দিয়েছে সরকার : নজরুলদলে নেই মুশফিক-মোস্তাফিজ, অভিষেক দু’জনেরগোলদিঘীর সৌন্দর্য্য বর্ধন, মাস্টার প্ল্যান ও ইমারত নির্মাণ বিধিমালা- ১৯৯৬ নিয়ে ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের জনসাধারণের সাথে কউকের মতবিনিময় সভা সম্পন্ন

চকরিয়ায় ২ প্রতারক গ্রেফতার

Chakaria-Picture-15-05-2018-650x406.jpg

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে কুমিল্লার একজন ও মৌলভীবাজারের অপরজনের কাছ থেকে কৌশলে ১২ লাখ ৭০হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়েছে। টাকা দেয়ার পরও চাকুরী না হওয়ায় ভুক্তভোগীদের মনে সন্দেহ দেখা দেয়। এরই প্রেক্ষিতে ভুক্তভোগীরা সংশ্লিষ্ঠ আইন প্রয়োগকারী সংস্থার আশ্রয় নেন। পরবর্তীতে বিষয়টি পুলিশ হেড কোয়ার্টার ঘুরে প্রতারকদের ধরতে চকরিয়ায় পুলিশের কাছে ভুক্তভোগীদের অভিযোগের অনুলিপি পাঠানো হয়। এরই প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার চকরিয়া থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে প্রতারণার কাজে জড়িত দুইজনকে গ্রেফতার করেছে। তবে তাদের অপর সহযোগি পুলিশের অভিযান টের পেয়ে এলাকা ছেঁেড় লাপাত্তা হয়ে গেছে।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন চকরিয়া উপজেলার সাহারবিল ইউনিয়নের মাইজঘোনা গ্রামেমর মো. রাসেল ও কৈয়ারবিল ইউনিয়নের খোঁজাখালি গ্রামের সাজ্জাদুল ইসলাম।
বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী। তিনি বলেন, প্রতারক রাসেল ও সাজ্জাদসহ তাদের সহযোগিরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে কুমিল্লার একজন ও মৌলভীবাজারের অপরজনের কাছ থেকে কৌশলে ১২ লাখ ৭০হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। টাকা দেয়ার পরও চাকুরী না হওয়ায় ভুক্তভোগীদের মনে সন্দেহ দেখা দেয়। এরপর ভুক্তভোগীরা আইন প্রয়োগকারী সংস্থার আশ্রয় নেন।
ওসি বলেন, পরবর্তীতে বিষয়টি পুলিশ হেড কোয়ার্টার ঘুরে প্রতারকদের ধরতে চকরিয়ায় পুলিশের কাছে ভুক্তভোগীদের অভিযোগের অনুলিপি পাঠানো হয়। এরই প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার অভিযান চালিয়ে প্রতারণার কাজে জড়িত চকরিয়ার দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে তাদের সহযোগি উপজেলার বিএমচর ইউনিয়নের কৃষ্ণপূর গ্রামের আলমগীর রানা অভিযানের পরপর আত্মগোপনে চলে গেছে। তাকে ধরতে অভিযান চলছে।
প্রসঙ্গত: গ্রেফতারকৃত রাসেল শিক্ষামন্ত্রীর কথিত এপিএস এবং শেখ রাসেল শিশু-কিশোর পরিষদের স্বঘোষিত কক্সবাজার জেলা সভাপতি। আর আত্মগোপনে থাকা আলমগীর রানা সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি খোরশেদ আরা হকের স্বঘোষিত এপিএস এবং ভাগ্নে। তাদের প্রধান সহযোগী সাজ্জাদ।

Top