আপডেটঃ
যে দানে চরম শত্রু থেকে বন্ধু হলেন প্রিয়নবিআসছে শতাব্দীর দীর্ঘতম চন্দ্রগ্রহণ!ঈদে সাত পর্বের নাটকে ঊর্মিলাবাংলাদেশের যে কোনো সংকটে পাশে থাকবে ভারতহৃদয় জেতা ক্রোয়েশিয়া আজ ট্রফিও জিতুক!কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের বহুতল অফিস ভবনের নির্মাণ কাজের শুভ উদ্বোধনচট্টগ্রাম পানির ট্যাংক থেকে মা-মেয়ের লাশ উদ্ধারআওয়ামীলীগের প্রার্থী তালিকা প্রায় চূড়ান্ত, ৮৫টি সংসদীয় আসনে আসছে নতুন মুখবহিষ্কৃত এএসআই ইয়াবা সহ ডিবির হাতে গ্রেফতার:চট্টগ্রাম শাহ আমানত মার্কেটে আগুনক্ষমতা চিরস্থায়ী করার পাঁয়তারা করছে সরকার: ফখরুলভিসির বাসভবনে হামলাকারীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে, মুক্তিযোদ্ধা কোটা থাকবে: প্রধানমন্ত্রীকার্ডের লেনদেনে আসছে ‘এনএফসি’ প্রযুক্তিফাইনালে ‘ফ্রান্সের বিপক্ষে প্রস্তুত ক্রোয়েশিয়াগ্রামীণ গল্পে প্রসূন

নাইক্ষ্যংছড়ির দৌছড়িতে তামাক চাষীকে অপহরণ

.jpg

নাইক্ষ্যংছড়ি প্রতিনিধি : 

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দৌছড়ির গহীন অরণ্যে সাইফুল ইসলাম (১৮) নামের এক তামাক চাষীকে অপহরণ করেছে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। বুধবার রাত ১ টার দিকে উপজেলার দৌছড়ি ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড মামা-ভাগ্নে ঝিরি এলাকা থেকে তাকে অপহরণ করা হয়। অপহৃত সাইফুল ইসলাম একই এলাকার মৃত আব্দুল হক মিয়ার পুত্র।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, অপহৃত সাইফুল একজন তামাক চাষী। এখন তামাক পাতা পোড়ানোর সময়। এ জন্য মামা-ভাগ্নে ঝিরির বাঁকখালী চরে বর্গা নেওয়া তামাক ক্ষেতেই টং তৈরী একাকি রাত্রীযাপন করত সে। প্রতিদিনের ন্যয় বুধবার রাতেও টং ঘরে রাত্রীযাপন করাকালীন সময়ে রাত ১টার দিকে ৭/৮ জনের একদল মুখোশ পরিহীত সশস্ত্র সন্ত্রাসী তামাক ক্ষেত থেকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নিয়ে যায়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম অপহরণের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, অপহরণের পর থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত অপহৃত সাইফুলের কোন খবর পাওয়া যায়নি এবং অপহরণকারীরাও তার পরিবারের সাথে কোন ধরনের যোগাযোগ করেনি।

এ বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি থানা পরিদর্শক (ওসি) শেখ মোঃ আলমগীর জানান, গত রাত ১টার দিকে দৌছড়ির দূর্গম এলাকায় সশস্ত্র সন্ত্রাসী কর্তৃক এক ব্যক্তিকে অপহরণের খবর শুনেছি এবং অপহৃতকে উদ্ধারে পুলিশ-বিজিবি যৌথ অভিযানের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত ২ মাস পূর্বেও একই এলাকা থেকে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের হাতে ৩ তামাক চাষী অপহরনের স্বীকার হয়েছিল। অপহরণের ৮ দিন পর জিম্মিদশা থেকে মুক্তিপনের বিনিময়ে ফিরে আসে রামু উপজেলার ওই তিন ব্যক্তি।

Top