আপডেটঃ
কক্সবাজারে ইপসা’র নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ক প্রশিক্ষণ সভা অনুষ্ঠিতমিডিয়ার হাত বেঁধে দিয়েছে সরকার : নজরুলদলে নেই মুশফিক-মোস্তাফিজ, অভিষেক দু’জনেরগোলদিঘীর সৌন্দর্য্য বর্ধন, মাস্টার প্ল্যান ও ইমারত নির্মাণ বিধিমালা- ১৯৯৬ নিয়ে ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের জনসাধারণের সাথে কউকের মতবিনিময় সভা সম্পন্নকর্ণফুলীতে সিপিপি স্বেচ্চাসেবক সম্মাননা-২০১৮ এর জন্য মনোনিত হলেন যারাচট্টগ্রামে গ্ল্যাস্কো কারখানার শ্রমিকদের মহাসড়ক অবরোধকক্সবাজারে ‘শেখ হাসিনার উন্নয়নের গল্প’ প্রচারে ছাত্রনেতা ইশতিয়াকমাঝির কাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুর্যোগ মোকাবেলা শীর্ষক মতবিনিময় সভায় বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধিচট্টগ্রাম কলেজে অস্ত্র হাতে মহড়া:শংকিত সাধারন শিক্ষার্থীরাচট্টগ্রামে এক ওসির বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগরামুতে শহীদ লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা-২১ সেপ্টেম্বরবিএনপির ১৭৩ প্রার্থী প্রায় চূড়ান্তরামুর গর্জনিয়ায় বজ্রপাতে একই পরিবারের নারীসহ আহত ৫কক্সবাজারে প্রথম নির্মিত হচ্ছে সি,আই কোম্পানি ইন্ডাস্ট্রিজেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনার জন্য ইওসি স্থাপন

শার্শায় ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত

Josur.jpg
ইয়ানূর রহমান : ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে শার্শায় বর্ণাঢ্য রালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১০টার সময় বর্ণাঢ্য রালীটি উপজেলা চত্ত্বর থেকে বের হয়ে বাজার এলাকা প্রদক্ষিণ  শেষে আবােরা উপজেলা চত্ত্বরে এসে শেষ হয়। পরে উপজেলা কমপ্লেক্সে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধাণ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু।
এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শার্শা উপজেলা ভূমি সহকারি কর্মকর্তা আব্দুল ওয়াদুদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান, আলেয়া ফেরদৌস , বেনাপোল পোর্ট থানার পুলিশ পরিদর্শক(তদন্ত) ৷
শার্শা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উক্ত আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজাফফর হোসেন, দ্বীন ইসলাম, আব্দুল খালেক, বজলুর রহমান, জিয়াউল হক বুলবুল, নূর মোহাম্মদ, গিয়াস উদ্দিন প্রমুখ।
প্রধান অতিথি তার বক্তেব্যে বলেন, বৈদ্যনাথতলা থেকে মুজিবনগর: আসলে সেদিন মুজিবনগর নামটি ছিল একটি ছদ্দ নাম। নিরাপত্তার কারণে এই নামটি নেয়া হয়েছিল। স্বাধীন বাংলাদেশের সরকার গঠন হয়ে গিয়েছিল আরো আগেই। ১০ এপ্রিল আগরতলা থেকে বেতারে প্রবাসী সরকারের ঘোষণাও দেয়া হয়েছিল। এরপর প্রয়োজন হয়ে দাঁড়ায় বাংলাদেশের মাটিতে সরকার এর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানটি করা। আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ে যা ছিল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এপ্রিলের ১৪ তারিখ চুয়াডাঙ্গায় একটি স্থান ঠিক করা হয়েছিল। নিরাপত্তা ইস্যূতে তা বাতিল হয়।পরে ভারতের সীমান্ত ঘেঁষে মেহেরপুর মহকুমার জলা-জঙ্গলাকীর্ণ বৈদ্যনাথতলা নামক স্থানটি নির্বাচন করা হয় এবং ১৭ এপ্রিল, ১৯৭১ বাংলাদেশ সরকারের শপথ গ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করে ঝোঁপঝাড়, জলা-জঙ্গলপূর্ণ রাস্তাঘাট বিহীন এই জায়গাটিই নিরাপত্তার খাতিরে মুজিব নগর নামে  প্রচার করা হয়।
অনুষ্ঠানটি পরিচালা করেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান চৌধুরী।
Top