আপডেটঃ
কক্সবাজার ও রামুতে বিভিন্ন মাদ্রাসা পরিদর্শনকালে আল্লামা শাহ আহমদ শফী কওমি শিক্ষার গুরুত্ব অনুধাবন করেই সরকার কওমি সনদের স্বীকৃতি দিয়েছেঢাকা টেস্টে বাংলাদেশের বিশাল জয়কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুবর রহমান সম্পাদক আবু তাহের চৌধুরীচকরিয়া পৌরসভা যুবলীগ নেতা মোঃ বেলাল উদ্দিন ফরহাদের মৃত্যুতে রামু উপজেলা যুবলীগের শোকসোলাতানিয়া কেজি এন্ড নুরানী একাডেমীর পি.এস.সি পরীক্ষার্থীদে বিদায় ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান সম্পন্ন‘জনবিচ্ছিন্ন বিএনপি জামাত জ্বালাও পোড়াও এবং মানুষ হত্যার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে’ত্রুটি কাটিয়ে পুরোদমে চট্টগ্রামে গ্যাস সরবরাহকর্ণফুলীতে ‘সাঁকো’ সংগঠনের উদ্যোগে পি.এস.সি পরীক্ষার্থীদের ফ্রি কোচিং সেবা ও বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিতবিমান বন্দর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পি.এস. সি পরিক্ষাথীদের বিদায় সংবর্ধনা৩০ ডিসেম্বরই নির্বাচন: ইসিহাইকোর্টে হাজির হয়ে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন কক্সবাজারের ডিসি-এসপিউখিয়ার কলেজছাত্রী হত্যাকারী সন্ত্রাসী কবিরের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধারমাওলানা আনোয়ারের জানাজা ও দাফন সম্পন্ন‘থ্যাঙ্ক ইউ পিএম’ বিজ্ঞাপনের বিষয়ে অভিযোগ পেলে খতিয়ে দেখা হবে: ইসি সচিবনির্বাচন পিছিয়েছেন। আর নয়। একদিনও নয়, একঘণ্টাও নয়।

‘রাতে পরিচালক ঘরে এসে জড়িয়ে ধরতে চেয়েছিলেন’

swara-bhaskar.jpg

ওয়ান নিউজ বিনোদন ডেক্সঃ ভারতের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাস্টিং কাউচ ও যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছেন বহু অভিনেত্রী। প্রকাশ্যে মুখও খুলেছেন তাঁরা। সম্প্রতি হলিউড প্রযোজক হার্ভে উইনস্টেনকে নিয়ে একটা বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। তাঁর যৌন লালসার শিকার হয়েছেন বহু অভিনেত্রী। মিডিয়ার সামনে মুখও খুলেছেন তাঁরা। আর এবার যৌন হেনস্থা নিয়ে মুখ খুললেন স্বরা ভাস্কর। শুটিং চলাকালীন খোদ পরিচালকের যৌন লালসার শিকার হন তিনি।

বলেন, তখন ইন্ডাস্ট্রিতে একেবারেই নতুন। এর আদব কায়দা খুব একটা বুঝতাম না। একটা ছবির শুটিং শুরু হয়ে গিয়েছিল। একটি প্রত্যন্ত এলাকায় চলছিল শুটিং। শুটিং চলাকালীন পরিচালক আমাকে বিভিন্ন আপত্তিকর মেসেজ করতেন। সব সময় চোখে চোখে রাখতেন। আর রাতে ছবির দৃশ্য নিয়ে কিছু আলোচনার জন্য তাঁর রুমে ডেকে পাঠাতেন। এরপর ভালোবাসা ও সেক্স নিয়ে কথা বলতে শুরু করেন তিনি। তারপর একদিন রাতে মদ্যপ অবস্থায় আমার ঘরে আসেন। আমাকে জড়িয়ে ধরতে চান।

আরও বলেন, রীতিমতো ভয়ে ভয়ে আমার দিন কাটত। পুরো একা হয়ে গিয়েছিলাম আমি। এরপর থেকে আমি শুটিং শেষ হয়ে গেলেই ঘরের আলো বন্ধ করে দিতাম। অন্ধাকারের মধ্যেই মেকআপ তুলতাম। আমি যে জেগে রয়েছি সেটা যাতে বাইরের কেউ বুঝতে না পারে তার জন্যই অন্ধকারে সব কাজ করতাম।”

এর পরবর্তী অভিজ্ঞতা সম্পর্কে স্বরা বলেন, যারা আমাকে কাস্ট করেছিল তাদেরই যৌন হেনস্থার শিকার হই। এমনকী, তাদের প্রস্তাব নাকচ করে দেওয়ায় বেশ কয়েকটি ছবি থেকে আমাকে বাদ দেওয়া হয়। এই বিষয়টা আমাকে দুর্বল করে দেয়। অনেকেই আমার মেসেজের রিপ্লাই দেওয়া বন্ধ করে দেয়। একা হয়ে যাই আমি। কারণ, তিনি কোনওভাবেই সমঝোতা করবেন না বলে জানতেন ইন্ডাস্ট্রির সেই সব লোকজন। আসলে আমি ছবি হারাতে রাজি। কিন্তু, কাস্টি কাউচের শিকার হতে রাজি নই।

Top