আপডেটঃ
২৫ ঘন্টা পর ২ শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধারকক্সবাজার পৌরসভার নৌকার মাঝি মুজিব চেয়ারম্যানগুরুতর অসুস্থ পর্নো অভিনেত্রী সানি লিওনব্রাজিল জিতল ২-০ গোলে‘নির্বাচনে জয়ী হতে গিয়ে যেন দলের বদনাম না হয়’সৌদি নারীরা রোববার থেকে গাড়ি চালাবেনবাস ডোবায় পড়ে নিহত ৩, আহত ৫জনকে চমেকে ভর্তিগণধর্ষণের ঘটনায় খাগড়াছড়িতে মানববন্ধনতিন সিটিতে নৌকার মাঝি হলেন লিটন, সাদিক ও কামরানইনজুরি টাইমের গোলে ব্রাজিলের জয়প্রথমার্ধে কোস্টারিকার বিপক্ষে ০-০ হট ফেবারিট ব্রাজিলনাইজেরিয়ার বিপক্ষে নামার আগেই সাম্পাওলির বিদায়?বিএনপির সঙ্গে প্রেম করার কোনো সুযোগ নেই-কাদেরনাইজেরিয়া-আইসল্যান্ড ম্যাচে ভাগ্য ঝুলছে আর্জেন্টিনারব্রাজিলের ফিরে আসার ম্যাচ, নাকি…?

ঈদগাঁওতে আইনের চোখ ফাঁকি দিয়ে বাল্যবিবাহ সম্পন্ন!

ballo.jpg

 

 

ঈদগাও প্রতিনিধিঃ

কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে আইনের চোখ ফাঁকি দিয়ে বাল্যবিবাহ সম্পন্ন হয়েছে বলে গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। কনে ঈদগাহ শাহ জব্বারিয়া আদর্শ দাখিল মাদরাসার ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী।

 

সুত্রে জানাযায়, গত ০৭ মার্চ ঈদগাহ ইউনিয়নের চাঁন্দেরঘোনা এলাকার সৌদি প্রবাসী মৌলবী কামাল উদ্দিনের মেয়ে নুসরাত জাহান রুমি (১৪) এর সাথে পাহাশিয়াখালী ঠেকপাড়া এলাকার মৃত আমিনের ছেলে মুহাম্মদ খালেক (৩০) এর সাথে সুকৌশলে বিবাহ সম্পন্ন হয়েছে।

 

যদিওবা কণের বড় ভাই ইকবাল হাসান বিবাহের কথা অস্বীকার করলেও পাহাশিয়াখালী এলাকার লোকজন জানান রুমীকে কয়েকদিন ধরে খালেকের বাড়িতে দেখা যাচ্ছে। এমনকি বিবাহ উপলক্ষে অনেককে মেজবানের দাওয়াত ও দিয়েছে বর পক্ষ।

 

কয়েকদিন আগে এ ব্যাপারে আমাদের কক্সবাজারসহ বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টালে খবর প্রকাশিত হওয়ার পাশাপাশি সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ পুলিশ প্রশাসনকে জানানো হয়েছিল। কিন্তু উভয় পক্ষের অভিভাবকরা আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে কাবিন নামা ছাড়াই চুক্তি পত্রের মাধ্যমে বিয়ে সম্পন্ন করে। যেটা সরাসরি সংবিধানের লঙ্গন।

 

তাছাড়াও বাল্যবিবাহে বাধা দেওয়ায় একই এলাকার হারুনর রশিদ নামক একযুবকের বিরুদ্ধে ইভটিজিং এর অভিযোগও এনেছিল কনে পক্ষ। তাই ভয়ে বাল্যবিবাহ হওয়ার পরেও অনেকে মূখ খুলেনি তাদের বিরুদ্ধে।

 

বিশিষ্টজনদের ধারণা যদি এমন কুচক্রীমহলকে আইনের আওতায় আনা না যায় তাহলে বাল্যবিবাহ বন্ধ করা কোন দিনও সম্ভব হবে না। পাশাপাশি অন্যরাও একই পদ্ধতিতে বাল্যবিবাহের প্রতি উৎসাহিত হবে।

 

তাই তার অধ্যায়নরত মাদরাসায় রেজিষ্টেশন দেখে আসল বয়স সনাক্তকরে বাল্যবিবাহ রোধে অভিযুক্তদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবী জানিয়েছেন সচেতন মহল। এ ব্যপারে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার নোমান হুসেন প্রিন্স বলেন,  অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য যে, অভিযুক্ত পরিবার থেকে রুমির বড়বোন নুসরাত জাহান উর্মী (১৪)কে ৩ বছর আগে একই পদ্ধতিতে পোকখালী নাইক্ষনদিয়া এলাকার সেলিমের সাথে বিবাহ দিয়েছিল এবং তার বড় ভাই ইকবাল হাসান ৫ বছর আগে চৌফলদন্ডী খামার পাড়া এলাকার এক অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ায় নারী ও শিশু নির্যাতন এবং অপহরণ মামলায় আসামী করেছিল কনে পক্ষ।

Top