আপডেটঃ
বনপা’র উদ্যোগে ‘মহাকাশে বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা ও ইফতার মাহফিল ২৬ মেনাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমে পাহাড় ধ্বসে ৫ জনের মৃত্যু : ১ জন কে জীবিত উদ্ধারঅভিভাবকহীন মারুফা কর্ণফুলী থানায়রোহিঙ্গা শিশুদের সাথে সময় কাটালেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কাতাসফিয়া হত্যায় ৩য় পক্ষের ইন্দন খতিয়ে দেখার দাবি বাবারকক্সবাজারে প্রিয়াঙ্কা, বিকেলে যাবেন রোহিঙ্গা ক্যাম্পেচৌফলদন্ডীর সন্তান হিসাবে ইয়াবা নির্মুলে দু একটা কথা আমাকে বলতে হবেব্যবসায়ী সেলিমের উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও মানববন্ধননকল ও ভেজাল প্রতিরোধে ঈদগাও বাজারে অভিযানরোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে বাংলাদেশে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ানামাজ পড়ার সময় যদি পেছনের সারি থেকে বাচ্চাদের হাসির আওয়াজ না আসে, তাহলে পরবর্তী প্রজন্মের ব্যাপারে ভয় করুন”প্রধানমন্ত্রীর ‘নির্বাচিত ১০০ ভাষণ’ সব সরকারি দফতরে রাখার নির্দেশএমপিওভুক্ত শিক্ষকদের দলীয় রাজনীতি নিষিদ্ধ হচ্ছেঈদগড়ে পুলিশের অভিযানে গাঁজাসহ ১ ব্যবসায়ী আটকরামু ক্রসিং হাইওয়ে থানা পুলিশের পৃথক অভিযান ২৫ হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক চার

সব দ্বীনি আলোচনাই প্রিয়নবির সীরাত

Islam-Sirat.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ কুরআন-হাদিসের সব কথাই মানুষের জীবন ব্যবস্থার সঙ্গে সম্পর্কিত দ্বীনি আলোচনা। আর দ্বীনের সব বিষয় রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কাওল, ফে’ল ও তাকরির সীরাতের অন্তর্ভূক্ত। অর্থাৎ প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কোনো বিষয়ে যা বলেছেন, যা করেছেন বা যে বিষয়ে মৌন সমর্থন দিয়েছেন বা নিরব রয়েছেন এর সবই তার সীরাত তথা আদর্শ।

আবার এর বাইরে যে সব বিষয়ে নিষেধ করেছেন তা থেকে বিরত থাকাও প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সীরাত তথা আদর্শ।

হজরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহাকে এক মহিলা জিজ্ঞাসা করেছিলেন যে, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সীরাত তথা আদর্শ কি বা কেমন ছিল? হজরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা জানতে চাইলেন, তুমি কি কুরআন পড়নি? মহিলা বলল, হ্যাঁ, কুরআন তো পড়েছি। তখন হজরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা বললেন, (كَانَ خُلُقُه الْقُرْأَنَ) রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সীরাত হলো পবিত্র কুরআন।’

কুরআনই ছিল প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সীরাত, চরিত্র তথা আদর্শ। তাই তো বলা হয় রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ছিলেন জীবন্ত কুরআন বা কুরআনের পরিপূর্ণ প্রতিচ্ছবি।’

কুরআনে পাকে যত আদর্শের কথা আল্লাহ তাআলা ঘোষণা করেছেন, প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম প্রথমেই তা নিজের জীবনে বাস্তবায়ন করেছেন। তারপর তাঁর সাহাবায়ে কেরামের মাধ্যমে সে আদর্শের বা হুকুমের বাস্তবায়ন করিয়েছেন।

উল্লেখ করা যেতে নামাজের কথা। প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের ওপর এ জাতির জন্য দৈনন্দিন জীবনে ৫ ওয়াক্ত নামাজকে ফরজ করা হয়েছে। এ নামাজ কিভাবে পড়তে হবে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তা পড়ে সাহাবায়ে কেরামকে দেখিয়েছেন। তাদের কাছে বর্ণনা করেছেন। আর তা হাদিস হিসেবে প্রসিদ্ধি লাভ করেছে।

নামাজ সম্পর্কে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘(صَلُّوا كَمَا رَأَيْتُمُوْنِىْ اُصَلِّىْ) অর্থাৎ আমাকে যেভাবে নামাজ পড়েত দেখেছ, সেভাবেই তোমরা নামাজ আদায় কর।’

নামাজের তাকবির, কেরাত, রুকু, তাসবিহ, সেজদাহ, তাশহহুদ ইত্যাদি আদায় করতে হবে তা বাস্তবে দেখানোর পাশাপাশি হাদিসেও বিশদভাবে বর্ণনা করেছেন।

আর কুরআনের সব নির্দেশগুলোই প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর ব্যক্তিগত, পারিবারিক, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় জীবনে বাস্তবায়নের মাধ্যমে প্রমাণ করে দিয়ে গেছেন যে, কুরআনই হলো প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের মিশন, সীরাত ও আদর্শ।

কুরআনের এ সব নির্দের্শের বিষদ বর্ণনা হলো প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের হাদিস। আর দুনিয়ার জীবনের এ সব দ্বীনি আলোচনাই হলো কুরআন-হাদিসের কথা। যা প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের পবিত্র জীবনাদর্শ।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জীবন্ত আদর্শ কুরআন, হাদিস ও দ্বীনি শিক্ষা অনুযায়ী জীবন সাজানোর তাওফিক দান করুন। কুরআন-হাদিসের রঙ্গে নিজেদের জীবনকে রঙিন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Top