আপডেটঃ
ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলকে বরখাস্ত করছেন ট্রাম্পঈদগাঁহতে আওয়ামীলীগের জনসভাঃ এমপি কমলের লাখ জনতার শোডাউনচট্টগ্রামে জলসা মার্কেটের ছাদে ২ কিশোরী ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৬যশোরের বেনাপোলে সীমান্তে দুই নাইজেরিয়ান নাগরিক আটক“বিএনপি ক্ষমতার লোভে অন্ধ হয়ে গেছে”ঈদগাঁহর জনসভায় রামু থেকে এমপি কমলের নেতৃত্বে যোগ দেবে লক্ষাধিক জনতাসৈকতে অনুষ্ঠিত হলো জাতীয় উন্নয়ন মেলা কনসার্টকর্ণফুলীতে মা সমাবেশশেখ হাসিনার গুডবুক ও দলীয় হাই কমান্ডের তরুণ তালিকায় যারানজিব আমার রাজনৈতিক বাগানের প্রথম ফুটন্ত ফুল- মেয়র মুজিবুর রহমাননাইক্ষ্যংছ‌ড়ি‌তে ডাকাত আনোয়ার বলি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মুক্তগণমাধ্যমের জন্য বড় বাধা হয়ে দাঁড়াবে’শহীদ জাফর মাল্টিডিসিপ্লিনারী একাডেমিক ভবনের উদ্বোধনসরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনজাতিসংঘ অধিবেশনে যোগ দিতে ঢাকা ছাড়লেন প্রধানমন্ত্রী

শিশুদের কাছেও শেখার আছে মা-বাবার

Child-Mother.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ শিশুদের প্রথম শিক্ষক হচ্ছে তার মা-বাবা।  তাদের কাছ থেকে সব কিছু শেখে শিশুরা।  আধুনিক প্রযুক্তির এই যুগে ইন্টারনেটের বদৌলতে এখনকার সময়ের শিশুরা আরও বেশি আপডেট।  তবে শুধু শিশুরাই যে বাবা-মায়ের কাছ থেকে শেখে এমনটি নয়, বরং মা-বাবারও তাদের কাছে কিছু শেখার আছে।  কারণ শেখার কোনো বয়স নেই।  সন্তানদের কাছ থেকে কী শিক্ষা নেবেন তা জানিয়ে দিচ্ছে টাইমস অব ইন্ডিয়া- 

অন্যকে সম্মান করতে শেখায়শিশুরা কথা না শুনলে মা-বাবা অকারণে চিৎকার চেঁচামেচি করেন।  এটা ঠিক নয়।  আপনি যখন রেগে যান তখন আপনার সন্তান কিন্তু আপনার উপর রাগে না।  বরং শান্তভাবে সে আপনার কথার জবাব দেয়।  আসলে সে আপনাকে সম্মান করে বলেই এমনটি করে থাকে।  তাই শিশুদের কাছ থেকে মা-বাবা এ শিক্ষাটা নিতেই পারেন।  আপনার মানসিক অবস্থা যাই থাকুক না কেন সন্তানের সঙ্গে নম্রভাবে কথা বলুন।

ভারসাম্য বজায় রেখে চলাছোট থেকে বড় হওয়ার সময় শিশুদের নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হয়।  কাজেই তাদের কাছ থেকে ভারসাম্য বজায় রেখে চলার কৌশলটা মা-বাবা শিখে নিতেই পারেন। পেশাগত কিংবা পারিবারিক জীবনে তারা অনেক সংকটে পড়তে পারেন।  জীবনে যতই উত্থান-পতন আসুক না কেন সবসময় নিজের ইতিবাচক মনোভাব বজায় রাখুন।  তাহলে যে কোন কঠিন পরিস্থিতি সহজেই মোকাবেলা করতে পারবেন।

সুখ আপনার হাতেশিশুরা সবসময় হাসে।  আর সন্তানের সেই হাসিমাখা মুখ দেখে প্রত্যেক মা-বাবা সুখী বোধ করেন।  সবসময় হাসিখুশি থাকার এই শিক্ষাটাও আপনি সন্তানের কাছ থেকে নিতে পারেন।

বর্তমানকে উপভোগ করুনশিশুরা স্কুলে গেলে প্রত্যেক মা-বাবাই তাদের লেখাপড়া, স্বাস্থ্য এবং ক্যারিয়ার নিয়ে চিন্তায় থাকেন।  সবসময় এমন চিন্তা করাও ঠিক নয়।  কারণ সারাক্ষণ মানসিক চাপে থাকলে আপনি স্বাস্থ্যগত সমস্যায় পড়তে পারেন।  তাই নিজের বর্তমান সময়টা আরও উপভোগ্য করে তুলুন।

নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করার শিক্ষাশিশুরা সবসময় চকলেট, আইসক্রিম, চিপস খেতে পছন্দ করে।  কিন্তু অনেক শিশু আছে যারা বন্ধুদের সঙ্গে থাকলেও স্বাস্থ্যক্ষতির আশঙ্কায় বারবার এসব খাবার খাওয়া থেকে নিজেকে বিরত রাখে।  ছোট বয়স থেকেই নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করার এই শিক্ষাটাও কিন্তু প্রত্যেক মা-বাবা কিন্তু শিশুদের কাছ থেকে নিতে পারেন।

Top