আপডেটঃ
ঈদগাঁহর জনসভায় রামু থেকে এমপি কমলের নেতৃত্বে যোগ দেবে লক্ষাধিক জনতাসৈকতে অনুষ্ঠিত হলো জাতীয় উন্নয়ন মেলা কনসার্টকর্ণফুলীতে মা সমাবেশশেখ হাসিনার গুডবুক ও দলীয় হাই কমান্ডের তরুণ তালিকায় যারানজিব আমার রাজনৈতিক বাগানের প্রথম ফুটন্ত ফুল- মেয়র মুজিবুর রহমাননাইক্ষ্যংছ‌ড়ি‌তে ডাকাত আনোয়ার বলি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মুক্তগণমাধ্যমের জন্য বড় বাধা হয়ে দাঁড়াবে’শহীদ জাফর মাল্টিডিসিপ্লিনারী একাডেমিক ভবনের উদ্বোধনসরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনজাতিসংঘ অধিবেশনে যোগ দিতে ঢাকা ছাড়লেন প্রধানমন্ত্রীভারতকে মাত্র ১৭৪ রানের চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশেরবেনাপোল সীমান্তে অস্ত্র-গুলি মাদকদ্রব্য সহ আটক ১আগামী মনোনয়নে নেত্রীর গুডবুক ও দলীয় হাই কমান্ডের তালিকায় যারাকক্সবাজারে হারিয়ে যাওয়া ব্যাগ ফিরিয়ে দিলেন টমটম চালককক্সবাজারে ইপসা’র নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ক প্রশিক্ষণ সভা অনুষ্ঠিত

চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেফতার দুই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা

atok.jpg

জে,জাহেদ চট্টগ্রাম:

কোটি টাকা চাঁদাবাজির মামলায় নগরীতে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা দেবাশীষ নাথ দেবু ও এটিএম মনজুরুল ইসলাম রতনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টার দিকে নগরীর সাগরিকা থেকে দেবাশীষ নাথ দেবুকে (৪৮) গ্রেফতার করা হয়। দুপুরে মুরাদপুর থেকে এটিএম মনজুরুল ইসলাম রতনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পাঁচলাইশ থানার ওসি মহি উদ্দিন মাহমুদ। চাঁদাবাজির অভিযোগে বন্ধন নাথ নামে এক কুয়েত প্রবাসীর দায়ের করা মামলায় দেবু ও রতনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন ওসি।

দেবাশীষ নাথ দেবু নগরীর পাঁচলাইশ থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি। বর্তমানে পদ না থাকলেও প্রয়াত নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারী হিসেবে নগরীতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের রাজনীতির অন্যতম নিয়ন্ত্রক দেবু।
পদ না থাকলেও মনজুরুলও স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা হিসেবে বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মস‚চিতে নিজেকে পরিচয় দেন বলে স‚ত্র জানিয়েছে।

ওসি জানান, নগরীর পাঁচলাইশ থানার প‚র্ব নাছিরাবাদ এলাকায় ২০০৭ সালে একটি পুরনো ভবন কেনার পর সেটি ভেঙে নতুন ভবন তৈরির চেষ্টা করছিলেন বন্ধন নাথ। ২০১৬ সালে ডিজাইন সোর্স টিম লিমিটেড নামে একটি ডেভেলপার প্রতিষ্ঠানকে ভবন তৈরির দায়িত্ব দেন তিনি।

২০১৬ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি কাজ শুরুর পর দেবুর নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা এসে ভবন তৈরি করতে হলে তাদের এক কোটি টাকা দিতে হবে বলে দাবি করেন। এতে অস্বীকৃতি জানালে তারা বন্ধনকে মারধর এবং পিঠের ডান পাশে গুলি করে গুরুতর জখম করে বলে মামলার আরজিতে দাবি করা হয়েছে।

পরে বন্ধন কুয়েত গিয়ে প্রাইম ব্যাংকের চেকের মাধ্যমে দেবুসহ সন্ত্রাসীদের ৭০ লাখ টাকা দিতে বাধ্য হন।
এর মধ্যে ২০১৭ সালে ডেভেলপার প্রতিষ্ঠান সেখানে ভবন নির্মাণে অস্বীকৃতি জানান। বন্ধন নাথ তার শুভাকাঙ্খী পাঁচজনের সঙ্গে মিলে সেখানে ভবন তৈরির কাজে হাত দেন।
চলতি বছরের ২ ফেব্রুয়ারি কাজ শুরুর পর আবারও সন্ত্রাসীরা এসে আরও ৩০ লাখ টাকা দেওয়ার জন্য চাপ দেন এবং কাজ বন্ধ করে দিতে বাধ্য করেন।
এই অবস্থায় ২৩ ফেব্রুয়ারি বন্ধন নাথ পাঁচলাইশ থানায় একটি মামলা দায়েরের পর পুলিশ আসামিদের গ্রেফতারে অভিযানে নামে।
ওসি মহি উদ্দিন মাহমুদ বলেন, মামলা দায়েরের পর আমরা অভিযুক্ত গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেছি। দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আশা করছি বাকিদেরও গ্রেফতার করতে পারব।
এদিকে শনিবার বিকেলে দেবু ও রতনকে চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। তবে দেবুর ঘনিষ্ঠ স‚ত্র দাবি করেছে, বন্ধন নাথ যে পুরনো ভবন কিনেন, সেটির মধ্যস্থতা করেছিলেন দেবু। মধ্যস্থতা বাবদ পাওনা টাকা পরিশোধে পরে অস্বীকৃতি জানান বন্ধন। ম‚লত এর থেকেই বিরোধের শুরু হয়।

তবে এই বিষয়ে জানার জন্য বেশ কয়েকবার বন্ধন নাথের মোবাইলে ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

Top