আপডেটঃ
“সংসদ নির্বাচন” ইসির ক্ষমতার প্রয়োগ দেখতে চাইহাঁটলে ওজন কমে, কিন্তু কতক্ষণ?টিভিতে ফেরদৌস-মৌসুমীর ‘পোষ্ট মাস্টার ৭১’জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধাকে পাচ্ছেন কোটি টাকা?কালো টাকায় মনোনয়ন বাণিজ্যআওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের সত্যিকারের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন হয়: শেখ আফিল উদ্দিন এমপিপ্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছানোর লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে আওয়ামীলীগ সরকার: সিরাজুল হক মঞ্জু৪৮তম বিজয় উদযাপনে প্রস্তুত জাতীয় স্মৃতিসৌধবিএনপি নেতাকর্মীদের গণগ্রেপ্তার বন্ধ না করলে কঠোর আন্দোলন : শাহজাহান চৌধুরীআ’লীগের জুলুম-নির্যাতনের জবাব দিতে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত ধৈর্য ধরুন : লুৎফুর রহমান কাজলউখিয়া-টেকনাফের সাধারন জনগনের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে নৌকার প্রার্থী শাহীনক্রিকেটের মতো রাজনীতিতেও অবদান রাখতে চান মাশরাফি১৯ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের নিয়মিত বিচারিক কার্যক্রম বন্ধসেনাবাহিনীকে গ্রেপ্তারের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে : সিইসি

বিবাহবিচ্ছেদ ঘটতে পারে যে পেশায়

women.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ নারী-পুরুষের জীবন-যাপন বদলে গেছে। বদলেছে নারীর সংগ্রামের চিত্রও। নারীরা এখন শুধু সংসার সামলান না। তারাও যুক্ত হচ্ছেন বিভিন্ন কর্মসংস্থানে। এখন শুধু স্বামীর আয়েই সংসার চলে না। তাই সমানভাবে উপার্জন করেন নারীরাও। যে কারণে কাজ শেষে বাসায় ফিরে স্বামী-স্ত্রীর একসঙ্গে সময় কাটানো অনেকটাই অসম্ভব। আর সে জন্য সংসারে ভাঙন ধরতেও সময় লাগে না।

তবে সব পেশাই এমন বিবাহবিচ্ছেদের কারণ নয়। আবার সবাই বিচ্ছেদের দিকেও যাচ্ছেন না। একটু ত্যাগের মধ্যদিয়েই তারা সবকিছু মানিয়ে নিতে চেষ্টা করেন। মার্কিন সেনসাস ব্যুরোর ‘আমেরিকান কমিউনিটি সার্ভে’র সমীক্ষায় কয়েকটি পেশার কথা বলা হয়েছে। এমন কয়েকটি কাজের ক্ষেত্র রয়েছে, যার ফলে বিবাহবিচ্ছেদ হতে পারে।

গেমিং ম্যানেজার 
হোটেল বা ক্যাসিনোয় কর্মরত কোনো গেমিং ম্যানেজারের দিনের ২৪ ঘ্ণ্টার বেশির ভাগই কেটে যায় রিসোর্ট বা ক্যাসিনোতে। তাই সঙ্গীকে সময় দেওয়ার সুযোগই পান না তারা। ফলে সবচেয়ে বেশি বিবাহবিচ্ছেদ হয় এ পেশায়।

woman

বারটেন্ডারস
এ পেশাতেও বিবাহবিচ্ছেদের হার খুবই বেশি। বেশিরভাগ সময়ই গভীর রাত পর্যন্ত তাদের কাজ করতে হয়। পাশাপাশি নেশাগ্রস্তদের সামলাতে হয়। সব মিলিয়ে তাদের জীবনও হয়ে ওঠে দুর্বিষহ। যার প্রভাব সংসারে এসেও পড়ে।

ফ্লাইট অ্যাটেন্ডেন্টস 
কাজের জন্য সারা বিশ্ব ঘুরে বেড়ানোর সুযোগ রয়েছে তাদের। সঙ্গে বিনা খরচে ভালো হোটেলে থাকার সুবিধাও রয়েছে। তবে এমন কর্মজীবনের কারণে সংসার জীবন হয়ে উঠছে বিষময়। তাই এ পেশায় ৫০ শতাংশেরও বেশি বিবাহবিচ্ছেদ হয়।

মার্কেটিং বা সেল্স
মাসের বেশিরভাগ সময়ই তাদের নিজ শহরের বাইরে থাকতে হয়। এছাড়া শহরে থাকলেও রাত পর্যন্ত মিটিং বা পার্টি থাকে। তাই সংসার জীবন শেষ হতে সময় লাগে না। যদিও বাংলাদেশে এ ক্ষেত্রে বিচ্ছেদের সম্ভাবনা খুব বেশি নয়। কেননা অনেকেই এটিকে স্মার্ট বা সম্মানজনক পেশা হিসেবে মনে করেন।

woman

টেলিমার্কেটিং
সকাল থেকেই তাদের কর্মব্যস্ততা শুরু হয়। গ্রাহকদের ফোন এবং অভিযোগ শুনতে শুনতেই কেটে যায় সারা দিন। ফলে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখা খুবই কঠিন। এ পেশার মধ্যে বিবাহবিচ্ছেদের হার মোটামুটি কম নয়। তবে বোঝাপড়া থাকলে তেমন সমস্যা হওয়ার কথাও নয়।

আলোচিত পেশাগুলো সব দেশের ক্ষেত্রে সমান প্রভাব না-ও ফেলতে পারে। আর বাংলাদেশের চিত্রও এর সঙ্গে হুবহু মিলে যাওয়ার কথা নয়। গবেষণা থেকে অনেক কিছুই পাওয়া যায়; তবে বাস্তবতা হুবহু গবেষণার সঙ্গে গরমিল হওয়াটাও অস্বাভাবিক নয়।

Top