আপডেটঃ
মালয়েশীয়ায় লিফটের কেবল ছিড়ে নিহত শার্শা-ঝিকরগাছর ৩ যুবকের দাফন সম্পন্নসৌদি বিমানবন্দর লক্ষ্য করে ইয়েমেনের মিসাইল হামলাকোথায় মুখোমুখি হচ্ছেন কিম-ট্রাম্প?কলকাতার ‘চালবাজ’ সেন্সরে জমা পড়েছেজনবল নেবে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেডপাবলিক রিলেশনস ম্যানেজার নিয়োগ দেবে হোটেল প্যান প্যাসিফিকসম্পাদক পরিষদের উদ্বেগ যৌক্তিক: আইনমন্ত্রীকমনওয়েলথ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন শেখ হাসিনাপুলিশের জেরায় যা জানালেন শামিঅনুমতি নেওয়ার পরও খালেদা জিয়ার সাক্ষাৎ পেলেন না বিএনপি নেতারাচট্টগ্রাম চাইল্ড কেয়ার হাসপাতালে জীবিত শিশু বদল করে মৃত শিশু:পরে মামলায় ফেরতচট্টগ্রাম পাহাড়ে অস্থিরতা প্রচুর অস্ত্রের মজুদ, একে-৪৭সহ বিপুল পরিমাণ অস্ত্র উদ্ধারকক্সবাজারে প্রশ্নফাঁস চক্রের এক সদস্য আটকনাইক্ষ্যংছড়ি আওয়ামীলীগের অভিভাবক হচ্ছেন শফি উল্লাহ ও ইমরানচকরিয়ায় ইউপি চেয়ারম্যানের মাইক্রোবাস চুরি: চালক আটক

বিএনপি শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাবে- লুৎফুর রহমান কাজল

BNP-1-810x540-810x540.jpg

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
বিএনপির চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী খালেদা জিয়া ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা, ভুয়া ও জাল নথির মাধ্যমে সাজানো রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত মামলায় সাজা প্রদানের প্রতিবাদে ও বেগম খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে কক্সবাজারে অনশন কর্মসূচী পালন করেছে জেলা বিএনপি। বুধবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্তÍ বিএনপির কার্যালয় চত্বরে এই অনশন কর্মসূচী চলে।
অনশন কর্মসূচীতে অংশ নিয়ে বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির মৎস্যজীবি বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক সাংসদ লুৎফুর রহমান কাজল প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, ‘দেশনেত্রী খালেদা জিয়া সরকারের প্রতিহিংসার শিকার। তাদের উদ্দেশ্যই হচ্ছে বেগম জিয়াকে কষ্ট দেয়া। কিন্তু তাঁকে যতই কষ্ট দেবেন আপনাদের ভোট ততই কমবে। খালেদা জিয়াকে জেলে পাঠালে আপনারা ভেবেছিলেন বিএনপি একেবারেই শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু এতে বিএনপি আরো বেশি শক্তিশালী ও ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। যেকোনো সময়ের তুলানায় বিএনপি আরো বেশি সুসংগঠিত হয়েছে।’
খালেদা জিয়া মুক্ত না হওয়ার পর্যন্ত শান্তিপূর্ন আন্দোলনের ইঙ্গিত দিয়ে লুৎফুর রহমান কাজল আরো বলেন, ‘আমরা এই আন্দোলন চালিয়ে যাবো; যতদিন নেত্রী মুক্ত না হন। তাকে মুক্ত করেই আমরা আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবো। বেগম জিয়া ছাড়া দেশে কোনো অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হবে না। তিনি ছাড়া দেশের মানুষের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনা সম্ভব হবে না। এই জন্য তাঁর মুক্তি প্রয়োজন।’
জেলা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এম. মোকতার আহামদের পরিচালনায় অনশনোত্তর এক সংক্ষিপ্ত সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এড. শামীম আরা স্বপ্না, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রাশেদ মোহাম্মদ আলী, জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি অধ্যাপক আজিজুর রহমান, জেলা যুবদলের সভাপতি সৈয়দ আহামদ উজ্জল, জেলা মহিলা দলের সভাপতি নাসিমা আকতার বকুল, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রাসেদুল হক রাসেল।
এতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সিরাজুল হক বিএ, যুগ্ম সম্পাদক আকতারুল আলম, দপ্তর সম্পাদক ইউসুফ বদরী, সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল মাবুদ, উখিয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি সরওয়ার জাহান চৌধুরী, পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি আবুল কাশেম ও জয়নাল আবেদীন, সদর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দীন জিকু, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জিসান উদ্দীন জিসান, জেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক হুমায়রা বেগম, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এড. মনির উদ্দীন, পৌর যুবদলের সভাপতি আজিজুল হক সোহেল, সাধারণ সম্পাদক মাস্টার জসিম উদ্দীন, শহর শ্রমিকদলের সভাপতি এস্তাক আহামদ, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, শহর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি হাজী আবদুর রহীম, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল হক মুন্না, কক্সবাজার সিটি কলেজ ছাত্রদলের আহ্বায়ক সাইফুর রহমান নয়ন, আইন কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি মিজানুল আলম, পৌর ছাত্রদলের সভাপতি এনামুল হক, সাধারণ সম্পাদক আল-আমিন, সদর উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ওসমান সরওয়ার রানা, কক্সবাজার কলেজ ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইদু সিকদার। এছাড়াও বিএনপি ও অঙ্গসংগঠন এবং সহযোগী সংগঠনের জেলা, শহরসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী অংশ নেন।

Top