আপডেটঃ
কক্সবাজারে ইপসা’র নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ক প্রশিক্ষণ সভা অনুষ্ঠিতমিডিয়ার হাত বেঁধে দিয়েছে সরকার : নজরুলদলে নেই মুশফিক-মোস্তাফিজ, অভিষেক দু’জনেরগোলদিঘীর সৌন্দর্য্য বর্ধন, মাস্টার প্ল্যান ও ইমারত নির্মাণ বিধিমালা- ১৯৯৬ নিয়ে ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের জনসাধারণের সাথে কউকের মতবিনিময় সভা সম্পন্নকর্ণফুলীতে সিপিপি স্বেচ্চাসেবক সম্মাননা-২০১৮ এর জন্য মনোনিত হলেন যারাচট্টগ্রামে গ্ল্যাস্কো কারখানার শ্রমিকদের মহাসড়ক অবরোধকক্সবাজারে ‘শেখ হাসিনার উন্নয়নের গল্প’ প্রচারে ছাত্রনেতা ইশতিয়াকমাঝির কাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুর্যোগ মোকাবেলা শীর্ষক মতবিনিময় সভায় বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধিচট্টগ্রাম কলেজে অস্ত্র হাতে মহড়া:শংকিত সাধারন শিক্ষার্থীরাচট্টগ্রামে এক ওসির বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগরামুতে শহীদ লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা-২১ সেপ্টেম্বরবিএনপির ১৭৩ প্রার্থী প্রায় চূড়ান্তরামুর গর্জনিয়ায় বজ্রপাতে একই পরিবারের নারীসহ আহত ৫কক্সবাজারে প্রথম নির্মিত হচ্ছে সি,আই কোম্পানি ইন্ডাস্ট্রিজেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনার জন্য ইওসি স্থাপন

বান্দরবান জেলা পরিষদ সদস্য নাইক্ষ্যংছড়ি ক্যউচিং চাকের পদত্যাগ

chak-resign.jpg

মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু, নাইক্ষৌংছড়ি :

অন্তর্বর্তীকালীন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য পদ থেকে চাক সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি হিসেবে মনোনীত মাষ্টার ক্যউচিং চাক পদত্যাগ করেছেন। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লার হাতে তিনি তার পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

এখনো শূন্য ওই পদটিতে কাউকে নিয়োগ দেয়া হয়নি। ক্যউচিং চাকের পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা বলেছেন, বয়সজনিত শারীরিক সমস্যার কারণে ক্যচিং চাক ঠিকমতো দায়িত্ব পারন করতে পারছিলেন না। স্থানীয়রা তার বিরুদ্ধে দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার অভিযোগ তুলছিল। এসব কারণে তিনি পদত্যাগ করেছেন। তার পদত্যাগপত্রটি গ্রহণ করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

বিগত ২৫ মার্চ ২০১৫ প্রথমবারের মতো তিনি বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছিলেন।

চেয়ারম্যানসহ ১৫ সদস্য বিশিষ্ট অন্তর্বর্তীকালীন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদে ক্যউচিং চাক নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা থেকে চাক সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিত্ব করছিলেন।

স্থানীয় একাধিক সূত্র জানিয়েছে, জেলা পরিষদের ন্যস্ত বিভাগগুলোতে নিয়োগ নিয়ে অনিয়মে জড়িয়ে পড়েছিলেন ক্যচিং চাক। এ নিয়ে চাক সম্প্রদায়ও দুভাবে বিভক্ত হয়ে পড়ে। দায়িত্বে অবহেলা ও অনিয়মের বিষয়গুলো নিয়ে চাক সম্প্রদায়ের লোকজন বান্দরবান জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা ও প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপির কাছে অভিযোগ জানান।

Top