আপডেটঃ
চকরিয়ায় পুলিশের অভিযানে মদ ও গাঁজা উদ্ধার:নারীসহ আটক-৪চকরিয়ায় পুলিশের আয়োজনে ডুলাহাজারা ডিগ্রী কলজে মাদক ও বাল্যবিবাহ নিরোধে সচেতনতামূলক সভা অনুষ্টিত       নাইক্ষ্যংছড়িতে ফের অপহরণ চক্রের আর এক সদস্য আটকসরাসরি এলএনজি গ্যাস নিয়ে কক্সবাজারের মহেশখালিতে বড় জাহাজ ‘এক্সিলেন্স’চট্টগ্রাম বাঁশখালিতে র‌্যাবের গুলি বিনিময়ে ধর্ষক নিহতচট্টগ্রামে বন্ধন লায়ন্স ও লিও ক্লাবের নতুন কমিটি গঠিতচকরিয়ায় মাদক ও চুরিতে বাঁধা দেয়ায় দুবৃর্ত্তের হামলায় কুপিয়ে জখম: আহত-৩চকরিয়ায় বনবিভাগের অভিযানে চারটি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদচকরিয়ায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম: নির্বাহী প্রকৌশলীসহ চারজনকে নোটিশসরকারের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকলে ২০৪১  সালে ভিশন প্রত্যাশা পূরণে উন্নত রাষ্ট্র পরিণত হবে জেলাজেলা প্রশাসক-কামাল হোসেনকক্সবাজারে হাইওয়ে পুলিশের অভিযান,২০ হাজার পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ২ঈদগাঁওতে একটি ব্রীজের অভাবে দূর্ভোগে পড়েছে ভাদীতলা ও শিয়াপাড়াবাসীটেকনাফ বাহারছড়ায় ৮ বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যামগনামা লঞ্চঘাট চ্যানেলে পলিথিন মুড়ানো নবজাতকের লাশ উদ্ধারজালালাবাদের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে ইউএনও বরাবরে অভিযোগ

বান্দরবান জেলা পরিষদ সদস্য নাইক্ষ্যংছড়ি ক্যউচিং চাকের পদত্যাগ

chak-resign.jpg

মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু, নাইক্ষৌংছড়ি :

অন্তর্বর্তীকালীন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য পদ থেকে চাক সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি হিসেবে মনোনীত মাষ্টার ক্যউচিং চাক পদত্যাগ করেছেন। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লার হাতে তিনি তার পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

এখনো শূন্য ওই পদটিতে কাউকে নিয়োগ দেয়া হয়নি। ক্যউচিং চাকের পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা বলেছেন, বয়সজনিত শারীরিক সমস্যার কারণে ক্যচিং চাক ঠিকমতো দায়িত্ব পারন করতে পারছিলেন না। স্থানীয়রা তার বিরুদ্ধে দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার অভিযোগ তুলছিল। এসব কারণে তিনি পদত্যাগ করেছেন। তার পদত্যাগপত্রটি গ্রহণ করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

বিগত ২৫ মার্চ ২০১৫ প্রথমবারের মতো তিনি বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছিলেন।

চেয়ারম্যানসহ ১৫ সদস্য বিশিষ্ট অন্তর্বর্তীকালীন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদে ক্যউচিং চাক নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা থেকে চাক সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিত্ব করছিলেন।

স্থানীয় একাধিক সূত্র জানিয়েছে, জেলা পরিষদের ন্যস্ত বিভাগগুলোতে নিয়োগ নিয়ে অনিয়মে জড়িয়ে পড়েছিলেন ক্যচিং চাক। এ নিয়ে চাক সম্প্রদায়ও দুভাবে বিভক্ত হয়ে পড়ে। দায়িত্বে অবহেলা ও অনিয়মের বিষয়গুলো নিয়ে চাক সম্প্রদায়ের লোকজন বান্দরবান জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা ও প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপির কাছে অভিযোগ জানান।

Top