আপডেটঃ
চকরিয়ায় পুলিশের অভিযানে মদ ও গাঁজা উদ্ধার:নারীসহ আটক-৪চকরিয়ায় পুলিশের আয়োজনে ডুলাহাজারা ডিগ্রী কলজে মাদক ও বাল্যবিবাহ নিরোধে সচেতনতামূলক সভা অনুষ্টিত       নাইক্ষ্যংছড়িতে ফের অপহরণ চক্রের আর এক সদস্য আটকসরাসরি এলএনজি গ্যাস নিয়ে কক্সবাজারের মহেশখালিতে বড় জাহাজ ‘এক্সিলেন্স’চট্টগ্রাম বাঁশখালিতে র‌্যাবের গুলি বিনিময়ে ধর্ষক নিহতচট্টগ্রামে বন্ধন লায়ন্স ও লিও ক্লাবের নতুন কমিটি গঠিতচকরিয়ায় মাদক ও চুরিতে বাঁধা দেয়ায় দুবৃর্ত্তের হামলায় কুপিয়ে জখম: আহত-৩চকরিয়ায় বনবিভাগের অভিযানে চারটি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদচকরিয়ায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম: নির্বাহী প্রকৌশলীসহ চারজনকে নোটিশসরকারের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকলে ২০৪১  সালে ভিশন প্রত্যাশা পূরণে উন্নত রাষ্ট্র পরিণত হবে জেলাজেলা প্রশাসক-কামাল হোসেনকক্সবাজারে হাইওয়ে পুলিশের অভিযান,২০ হাজার পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ২ঈদগাঁওতে একটি ব্রীজের অভাবে দূর্ভোগে পড়েছে ভাদীতলা ও শিয়াপাড়াবাসীটেকনাফ বাহারছড়ায় ৮ বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যামগনামা লঞ্চঘাট চ্যানেলে পলিথিন মুড়ানো নবজাতকের লাশ উদ্ধারজালালাবাদের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে ইউএনও বরাবরে অভিযোগ

সবুজ অরণ্যের মেঘলা পর্যটন কেন্দ্র

Megla-Badarban.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ সবুজ সুন্দরের গালিচা, মেঘলা পর্যটন কেন্দ্র। চারিদিকে শুধু সবুজ আর সবুজ। সবুজের মাঝেই ঘুরে বেড়াবেন আপনি, হারিয়ে যাবেন সবুজের রাজ্যে। পর্যটন স্পটটি বান্দরবন শহরের প্রবেশদ্বার বান্দরবান-কেরানীহাট সড়কের পাশেই অবস্থিত। বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের আকর্ষনীয় পর্যটন স্পট এই মেঘলা।

সবুজ প্রকৃতি, লেকের স্বচ্ছ পানি আর পাহাড়ের চূঁড়ায় চড়ে দেখতে পাবেন ঢেউ খেলানো বান্দরবানের নয়নাভিরাম দৃশ্য।

মেঘলায় চিত্তবিনোদনের বিভিন্ন উপকরণের মধ্যে রয়েছে- চিড়িয়াখানা, শিশুপার্ক, সাফারি পার্ক, প্যাডেল বোট, ক্যাবল কার, উন্মুক্ত মঞ্চ ও চা বাগান।

বান্দরবান জেলা শহরে প্রবেশের ৫ কিমি আগে মেঘলা পর্যটন এলাকাটি অবস্থিত। এটি সুন্দর কিছু উঁচু নিচু পাহাড়বেষ্টিত একটি লেককে ঘিরে গড়ে উঠেছে। ঘন সবুজ গাছ আর লেকের স্বচ্ছপানি পর্যটককে প্রকৃতির কাছাকাছি টেনে নেয় প্রতিনিয়ত। বৈচিত্র্যপিয়াসী মানুষের আত্মিক ক্ষুধাতৃষ্ণা নিবারণের অপূর্ব স্থান মেঘলা।

মেঘলায় চিত্তবিনোদনের বিভিন্ন উপকরণের মধ্যে রয়েছে- চিড়িয়াখানা, শিশুপার্ক, সাফারি পার্ক, প্যাডেল বোট, ক্যাবল কার, উন্মুক্ত মঞ্চ ও চা বাগান। এখানে সবুজ প্রকৃতি, লেকের স্বচ্ছ পানি আর পাহাড়ের চূঁড়ায় চড়ে দেখতে পাবেন। ঢেউ খেলানো বান্দরবানের নয়নাভিরাম দৃশ্য। মেঘলা পর্যটন স্পটের পাশেই রয়েছে বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের বান্দরবান পর্যটন হোটেলটি।

খাবার ও রাত্রিযাপন: মেঘলায় বেড়াতে আসা পর্যটকদের খাবার ও রাত্রিযাপনের জন্য বান্দরবান শহরে মাঝারি মানের হোটেল রয়েছে। এছাড়া পর্যটকদের জন্য খাবার ও রাত্রিযাপনের জন্য মেঘলার পাশেই রয়েছে পর্যটন কমপ্লেক্স বান্দরবান পর্যটন মোটেল ও হলিডে ইন নামে দুইটি আধুনিক পর্যটন কমপ্লেক্স। এখানে এসি ও নন এসি রুমসহ রাত্রি যাপন ও উন্নতমানের খাবারের ব্যবস্থা রয়েছে।

কিভাবে যাবেন: যে কেউ ঢাকা থেকে সরাসরি বান্দরবান যেতে পারেন ইউনিক, এস আলমসহ বেশ কয়েকটি বাসে। আর ঢাকা থেকে ট্রেনে বা বাসে প্রথমে চট্টগ্রাম তারপর সোজা বান্দরবানে যেতে পারেন। চট্টগ্রামের বহদ্দারহাট টার্মিনাল থেকে পূরবী ও পূর্বাণী নামক দু’টি ডাইরেক্ট নন-এসি বাস ৩০ মিনিটি পরপর বান্দরবানের উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

Top