আপডেটঃ
মালয়েশীয়ায় লিফটের কেবল ছিড়ে নিহত শার্শা-ঝিকরগাছর ৩ যুবকের দাফন সম্পন্নসৌদি বিমানবন্দর লক্ষ্য করে ইয়েমেনের মিসাইল হামলাকোথায় মুখোমুখি হচ্ছেন কিম-ট্রাম্প?কলকাতার ‘চালবাজ’ সেন্সরে জমা পড়েছেজনবল নেবে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেডপাবলিক রিলেশনস ম্যানেজার নিয়োগ দেবে হোটেল প্যান প্যাসিফিকসম্পাদক পরিষদের উদ্বেগ যৌক্তিক: আইনমন্ত্রীকমনওয়েলথ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন শেখ হাসিনাপুলিশের জেরায় যা জানালেন শামিঅনুমতি নেওয়ার পরও খালেদা জিয়ার সাক্ষাৎ পেলেন না বিএনপি নেতারাচট্টগ্রাম চাইল্ড কেয়ার হাসপাতালে জীবিত শিশু বদল করে মৃত শিশু:পরে মামলায় ফেরতচট্টগ্রাম পাহাড়ে অস্থিরতা প্রচুর অস্ত্রের মজুদ, একে-৪৭সহ বিপুল পরিমাণ অস্ত্র উদ্ধারকক্সবাজারে প্রশ্নফাঁস চক্রের এক সদস্য আটকনাইক্ষ্যংছড়ি আওয়ামীলীগের অভিভাবক হচ্ছেন শফি উল্লাহ ও ইমরানচকরিয়ায় ইউপি চেয়ারম্যানের মাইক্রোবাস চুরি: চালক আটক

মহিয়সী নারী বিবি রহমত

Islam-bibi-rahmat.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালামের স্ত্রী বিবি রহমত। আল্লাহ তাআলা তাকে পৃথিবীর নারীসহ সব মানুষের জন্য ধৈর্য ও ত্যাগের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বানিয়েছেন। তিনি স্বামীর সেবায় এমন ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছেন যে আল্লাহ তাকে ইসলামের ইতিহাসে প্রসিদ্ধ করেছেন। বিবি রহিমা হিসেবেই তিনি সর্বাধিক পরিচিত।

বিবি রহমতের মহিয়সী হওয়ার নেপথ্যে
আল্লাহর নবি হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালামের ধন-সম্পদ, সন্তান-সন্ততি, ক্ষেত-খামার ও বাগ-বাগিচা সবই ছিল। কিন্তু আল্লাহ তাআলা তাঁকে আর্থিক, দৈহিক ও সন্তানের দুঃখ-কষ্টে পতিত করেন। তাঁর ওপর আল্লাহর পরীক্ষা আসে, এবং তার সবকিছুই ধ্বংস হয়ে যায়। তার সম্পূর্ণ দেহ কুষ্ঠরোগে ভরে যায়।

সবাই হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালামকে ছেড়ে গেলেও বিবি রহমত (রহিমা) তাঁকে ছেড়ে যাননি। তিনি স্বামী খেদমতে নিজেকে নিয়োজিত রাখেন। সব রকম দুঃখ-কষ্ট সহ্য করতে থাকেন।

একবার হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালাম কোনো কারণে বিবি রহমতের ওপর রাগান্বিত হয়ে এ বলে কসম করেন যে, আমি যদি সুস্থ হই তবে তাঁকে (বিবি রহমত) ১০০ বেত্রাঘাত করব।

সম্পদশালী হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালাম নিঃস্ব হয়ে অনেক কষ্ট ভোগের পর আল্লাহর কাছে এভাবে দোয়া করেন যে-

‘এবং স্মরণ করুন আইয়্যুবের কথা, যখন তিনি তাঁর পালনকর্তাকে আহবান করে বলেছিলেন, আমি দুঃখকষ্টে পতিত হয়েছি এবং আপনি দয়াবানদের চাইতেও সর্বশ্রেষ্ট দয়াবান। (সুরা আম্বিয়া : আয়াত ৮৩)

অতঃপর আল্লাহ তাআলা হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালামকে সম্মানিত মাস মহররমে ক্ষমা করে দেন। তাঁকে সমুদয় সম্পদ, স্ত্রী-সন্তান পুনরায় দান করেন। কুরআনে সেকথা উল্লেখ করে আল্লাহ তাআলা বলেন-

‘অতঃপর আমি তাঁর আহবানে সাড়া দিলাম এবং তাঁর দুঃখকষ্ট দূর করে দিলাম এবং তাঁর পরিবরাবর্গ ফিরিয়ে দিলাম, আর তাদের সঙ্গে তাদের সমপরিমাণ আরও দিলাম আমার পক্ষ থেকে কৃপাবশত আর এটা ইবাদাতকারীদের জন্যে উপদেশ স্বরূপ। (সুরা আম্বিয়া : আয়াত ৮৪)

বিবি রহমতের ওপর আল্লাহর ইহসান
একদিকে পয়গম্বর হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালাম-এর কসম। অন্য দিকে সতীসাধ্বী স্বামীরে খেদমতে নিয়োজিত মহিয়সী নারী বিবি রহমত। এ অবস্থায় আল্লাহ তাআলা তাঁকে ইহসান করেন।
রাগের বশবর্তী হয়ে বিবি রহমতকে বেত্রাঘাতের যে কসম করেন; পয়গম্বর তা পূরণ করার ইচ্ছা পোষণ করেন। যেখানে স্ত্রী-সন্তানরা বিপদের সময় তাকে ছেড়ে চলে গেছে; সেখানে স্বামীর খেদমত পরায়ণা সতীসাধ্বী মহিয়সী নারী বিবি রহমতকে ১০০টি বেত্রাঘাত করতে হবে। তা ছিল হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালামের জন্য খুবই কঠিন।

আল্লাহ তাআলা নিজ অনুগ্রহে হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালামের কসম করা ১০০ বেত্রাঘাতের বিষয়টি সহজ করে দেন। আল্লাহ হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালামে বলে দিলেন যে, ১০০ শলাকা বিশিষ্ট একটি ঝাড়ু দিয়ে একবার আঘাত কর। তাহলে এ একটি আঘাতকে ১০০টি আঘাত হিসেবে গণ্য করে কসম পূর্ণ করা হবে।

আর এভাবেই পয়গম্বর আইয়ুব আলাইহিস সালামের কসম পূর্ণ হয় এবং বিবি রহমত কঠোর শাস্তি থেকে মুক্তি পায়। এটা ছিল বিবি রহমতের প্রতি আল্লাহ তাআলার একান্ত অনুগ্রহ।

উল্লেখিত ঘটনা থেকে উপলব্ধি করা যায় যে, স্বামীর খেদমতকারী বিবি রহমতের ওপর আল্লাহ তাআলা ইহসান করেছেন। একদিকে স্বামীর খেদমতের মাধ্যমে চরম ধৈর্যের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন বিবি রহমত। অন্য দিকে স্বামীর অসন্তুষ্টির অকল্যাণ ও শপথের বিপরীতে আল্লাহ তাআলা তাঁকে সাহায্য করেছেন।

আল্লাহ তাআলা পরম দয়া ও অনুকম্পা লাভে বিবি রহমত সব নারীদের জন্য অনুকরণীয় আদর্শ।

Top