আপডেটঃ
কমলকে নৌকা প্রতীকে বিজয়ী করতে দলে দলে দেশে ফিরছে সদর ও রামু উপজেলার প্রবাসীরানির্বাচনের আগে ওয়াজ মাহফিলের অনুমতি না দেয়ার নির্দেশখেতাবপ্রাপ্ত ১০১ মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মানী দিলেন প্রধানমন্ত্রীসংসদ নির্বাচন: ‘ক্লিন ইমেজের ক্যান্ডিডেট’ বলতে কী বোঝেন প্রার্থীরা?এক নজরে বিশ্বের সেরা কয়েকটি ভ্রমণ গন্তব্যবিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের শেষ দিনের সাক্ষাৎকার শুরুসশস্ত্র বাহিনী দিবস শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধাটেকনাফে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২জিএম রহিমুল্লাহর প্রথম জানাযা সম্পন্ন, শোকাহত জনতার ঢলকক্সবাজারের জয়া চৌধুরী পোলিং এজেন্ট উপ কমিটির সদস্য মনোনীত।। বিভিন্ন মহলের অভিনন্দন।।যশোরে মা-ছেলে, স্বামী-স্ত্রীসহ ৪১ জন ধানের শীষের মনোনয়ন প্রত্যাশীবিএনপির অভিযোগ ঢালাও, নির্দিষ্ট প্রস্তাব পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থাজিএম রহিমুল্লাহর মৃত্যুতে লুৎফুর রহমান কাজলের শোকরফিকুল ইসলাম মিয়া গ্রেফতারশেষ চেষ্টা ৩০ ডিসেম্বর: ফখরুল

খুটাখালীর পীর হাফেজ মাওলানা আবদুল হাই হুজুর আর নেই

FB_IMG_1516586780843.jpg

 

সৈয়দ আলম, কক্সবাজার

চকরিয়ার খুটাখালীর পীর ও প্রখ্যাত আলেমেদ্বীন হাফেজ মাওলানা আবদুল হাই ২২ জানুয়ারি রাত ২টা ৪০ মিনিটে আলীকদম সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজেউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার উপ-সহকারি মেডিকেল অফিসার মো. আমিনুল ইসলাম তাঁর মৃত্যু নিশ্চিত করেছেন।

 

রবিবার দিবাগত রাত সোয়া একটার সময় তাঁকে হাসপাতালে আনা হয়। এ সময় তিনি তীব্র শ্বাসকষ্টে ভূগছিলেন বলে কর্তব্যরত ডাক্তার ও উপস্থিত শুভকাঙ্খীরা জানান।

রবিবার (২১ জানুয়ারি) আলীকদম বাজার ব্যবসায়ীদের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত সীরাতুন্নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মাহফিলের দ্বিতীয় অধিবেশনে তাঁর সভাপতিত্ব করা কথা ছিলো।

বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি নাছির উদ্দিন সওদাগর জানান, ‘হুজুর আমার বাসায় রবিবার বিকেল থেকে অবস্থান করছিলেন। রাতে মাহফিলে তাঁর সভাপতিত্ব করার কথা ছিলো। কিন্তু হুজুর অসুস্থতাবোধ করায় আমার বাসায় তিনি বিশ্রাম নিচ্ছিলেন। তাঁর শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে রাত সোয়া একটার সময় বাসা থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘হাসপাতালের জরুরী বিভাগে তাকে রাখা হয়। এ সময় হুজুরের শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল। তাই তাঁকে অক্সিজেন, স্যালাইন ও ইনজেকশন দেওয়ার হয়। কিন্তু ইশারায় তিনি এসব খুলে ফেলার তাগাদা দেন। একপর্যায়ে তিনি উঠে বসতে চাইলে তাঁকে বসানো হয়। কিছুক্ষণ পর উত্তরমুখি হয়ে শোয়ে যান। এ সময় তাঁর শরীর নিস্তেজ হতে থাকে এবং তাঁকে অস্ফুষ্টস্বরে কিছু পড়তে দেখা যায়। রাত ২ টা ৪০ মিনিটের সময় তিনি ইন্তেকাল করেন’।

এদিকে, গভীর রাতে হাসপাতালে তাঁর অসংখ্য মুরীদ, শুভাকাঙ্খী ও অনুগ্রাহীরা হাসপাতালে ভীড় করেন। ভোররাত ৪টার সময় তাঁকে আলীকদম সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে এ্যাম্বুলেসযোগে খুটাখালীতে নিয়ে যাওয়া হয়।

Top