আপডেটঃ
বনপা’র উদ্যোগে ‘মহাকাশে বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা ও ইফতার মাহফিল ২৬ মেনাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমে পাহাড় ধ্বসে ৫ জনের মৃত্যু : ১ জন কে জীবিত উদ্ধারঅভিভাবকহীন মারুফা কর্ণফুলী থানায়রোহিঙ্গা শিশুদের সাথে সময় কাটালেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কাতাসফিয়া হত্যায় ৩য় পক্ষের ইন্দন খতিয়ে দেখার দাবি বাবারকক্সবাজারে প্রিয়াঙ্কা, বিকেলে যাবেন রোহিঙ্গা ক্যাম্পেচৌফলদন্ডীর সন্তান হিসাবে ইয়াবা নির্মুলে দু একটা কথা আমাকে বলতে হবেব্যবসায়ী সেলিমের উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও মানববন্ধননকল ও ভেজাল প্রতিরোধে ঈদগাও বাজারে অভিযানরোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে বাংলাদেশে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ানামাজ পড়ার সময় যদি পেছনের সারি থেকে বাচ্চাদের হাসির আওয়াজ না আসে, তাহলে পরবর্তী প্রজন্মের ব্যাপারে ভয় করুন”প্রধানমন্ত্রীর ‘নির্বাচিত ১০০ ভাষণ’ সব সরকারি দফতরে রাখার নির্দেশএমপিওভুক্ত শিক্ষকদের দলীয় রাজনীতি নিষিদ্ধ হচ্ছেঈদগড়ে পুলিশের অভিযানে গাঁজাসহ ১ ব্যবসায়ী আটকরামু ক্রসিং হাইওয়ে থানা পুলিশের পৃথক অভিযান ২৫ হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক চার

নাইক্ষ্যংছড়িতে ৪ জন অপহরনঃ মুক্তিপন দাবী

FB_IMG_1516453929906.jpg

 

হাবিবুর রহমান সোহেল, নাইক্ষ্যংছড়ি।

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দোছড়ি ইউনিয়নের লংগদুর মুখ এলাকা থেকে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে চার তামাক চাষীকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এবং মোটা অংকের মুক্তি পন দাবীর খবর পাওয়া গেছে। ২০ জানুয়ারি শনিবার ভোররাত ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। অপহৃতরা হলেন, রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের থোয়াঙ্গাকাটা গ্রামের বাসিন্দা নুরুল আলমের পুত্র আব্দুল আজিজ (১৬), একই গ্রামের বাসিন্দা আবদু রহমানের পুত্র আব্দুর রহিম (২৫), থিমছড়ি গ্রামের বাসিন্দা রদিশ আহামদের পুত্র শাহ আলম (৪০), অপরজন দোছড়ি ইউনিয়নের বাসিন্দা মৃত আলী মদনের পুত্র আবু সৈয়দ (৪২)। স্থানীয়রা জানান, জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দোছড়ি ইউনিয়নের লংগদুর মুখ এলাকার একটি খামার বাড়ি থেকে ১০/১২জন সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের মুখে এ ৪ তামাক চাষীকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। অপহৃতদের উদ্ধারে আশপাশের পাহাড়ী এলাকাগুলোতে অভিযান চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

এছাড়া উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের থ্রি স্টার রাবার বাগানেও সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে বাগান পাহারাদার আব্দু শুক্কুরকে মারধর ও রক্ষিত মালামাল নিয়ে যায় বলে জানান বাগানের সুপার ভাইজার মোঃ ইউনুছ।

অপহৃত আব্দুল আজিজের পিতা নুরুল আলম জানান, তার ছেলেকে অপহরণের বিষয়টি তিনি স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছ থেকে শুনেছেন। তবে এ পর্যন্ত কোন ধরনের মুক্তিপনও ছেলের বিষয়ে খোঁজখবর পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য গত কয়েক মাস আগেও দোছড়ি ইউনিয়নের ছাগল খাইয়া এলাকা থেকে তিন কৃষককে অপহরণ করেছিল। দীর্ঘ ৯দিন পর মুক্তিপনের বিনিময়ে তারা উদ্ধার হয়েছিল। এছাড়া বিগত দিনে বাঁকখালী, দোছড়ি, ছাগল খাইয়া এলাকা থেকে কমপক্ষে ২০ জনের অধিক লোকজনকে সন্ত্রাসীরা অপহরণ করেছিল। সকলেই মুক্তিপনের বিনিময়ে উদ্ধার হয়েছে বলে অপহৃতরা জানান।

এ বিষয়ে দোছড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: হাবিবুল্লাহ বলেন, তামাক চাষী ৪জনকে খামার বাড়ী থেকে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে নিয়ে যাবার সংবাদ শুনেছি । ওরা সবাই তামাক চাষ করতে লংগদুর মুখ এলাকায় এসেছিল।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আলমগীর জানান, তামাক চাষী ৪জনকে অপহরণের খবর পেয়েছি। তাদেরকে উদ্ধারের জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

Top