আপডেটঃ
কক্সবাজারের  হাফেজ ইয়াসিন আরাফাত সংবর্ধিতরোহিঙ্গারা আগের মতোই নৃশংসতার ঝুঁকিতে : ইউরোপীয় পার্লামেন্টউখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন এর ঔষুধ বিতরণ:স্বার্থপর নিষ্ঠুর সমাজের উৎপাদন ধর্ষকউন্নয়নের প্রতীক নৌকাকে জয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ হোন- সাফিয়া খাতুনঅনার্স ৪র্থ বর্ষের ফল প্রকাশসোমবারই চালু হচ্ছে ফোর-জিসমুদ্র সৈকতের বীচ কর্মী শহিদুল্লা রানার চাদাঁবাজিতে অতিষ্ঠ সাধারন হকাররা।নেগেটিভ চরিত্রেও বাজিমাত করেছেন এই নায়করা!নতুন আইনে সৌদিতে বেকার হবেন কয়েক লাখ শ্রমিকশ্রীলঙ্কার সিরিজ জয়, না টাইগারদের ঘুরে দাঁড়ানো?বেগম জিয়ার মুক্তি ছাড়া নির্বাচনে যাবে না বিএনপিসাতকানিয়ায় নদী ভাঙন প্রতিরোধ বাঁধ ধসে যাওয়ার আশঙ্কাশার্শায় ধর্মসভায় উস্কানিমুলক বক্তব্য দেয়ায় মাওলানা আল গালিব গ্রেফতারকারাবন্দিদের মাঝে আইনগত সহায়তা বৃদ্ধি বিষয়ক সভা

বিজয়ের পথে বাংলাদেশ

Tiger..jpg

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ শিরোনাম পড়ে এমন মনে হওয়ার সুযোগ নেই যে কথাটা আগেভাগে বলা হয়ে যাচ্ছে। পরিস্থিতিটাই তাই। দারুণ দাপট স্বাগতিকদের। মনে আছে নিশ্চয়ই গত বছরের শ্রীলঙ্কা সফরের কথা। সেখানে প্রথম ম্যাচে ৫ উইকেটে ৩২৪ রান করে ৯০ রানে জিতেছিল বাংলাদেশ। আর মিরপুরে ত্রিদেশীয় সিরিজের ম্যাচে লঙ্কানদের সাথে প্রথম দেখায় তাদের রীতিমতো বিদ্ধস্ত করে ছাড়ছে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। এই প্রতিবেদন লেখার সময় ৭ উইকেটে ১১৭ রান তাদের। ওভার গেছে আর্ধেকটা। ২৫.৫। বাকি ওভারগুলোতে ২০০’র বেশি রান করে কে জেতাবে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের দলকে? আগে ব্যাট করে ৪টি চমৎকার জুটিতে সেরা ৫ ব্যাটসম্যানের অবদানে ৭ উইকেটে ৩২০ রানের বিশাল পাহাড় গড়ে রেখেছে বাংলাদেশ।

এই শ্রীলঙ্কা টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়ের কাছে হেরেছে। যেখানে তারা ২৯১ রানের টার্গেট তাড়া করে জিততে পারেনি। আর বাংলাদেশ তো ওই জিম্বাবুয়েকে উড়িয়ে দিয়ে শুরু করেছিল টুর্নামেন্টটা। এরপর শ্রীলঙ্কাকে ব্যাটে-বলে ফিল্ডিংয়ে যেভাবে গুঁড়িয়ে দিচ্ছে টাইগাররা তাতে ফাইনালে এক পা দিয়ে রাখার অবস্থা এখন। তাদের চেয়ে এই টুর্নামেন্টের শিরোপার দাবিদার মনে হচ্ছে না আর কাউকেই। সদ্য বিদায়ী কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন শ্রীলঙ্কাকে তো নয়ই!

নাসির হোসেনকে প্রথম ওভারটি দিয়ে শুরু। অন্যপ্রান্তে বোলিংয়ে মাশরাফি। নাসির দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলে লঙ্কানদের দলীয় ২ রানেরই বিপজ্জনক কুশল পেরেরাকে (১) তুলে নিয়ে উৎসবের সূচনা করেন। অন্য প্রান্ত থেকে টানা ৮টি ওভার করে গেছেন খোদ নেতা মাশরাফি। সেখানে দারুণ সফল যেমন ব্যাটসম্যানদের আটকে রাখায়, তেমনই উইকেট শিকারেও। টানা স্পেলে প্রথম ওভারটি মেডেন। আর সব মিলে ৮ ওভারে ৩০ রানে ২ উইকেট। বিপিএলে সফল উপুল থারাঙ্গার (২৫) সাথে কুশল মেন্ডিস (১৯) তার শিকার।

৬২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া লঙ্কানদের ধুঁকতে থাকার সময় এগিয়ে আসে। এক প্রান্তে কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান আসেন। অন্য দিকে সাকিব আল হাসান। মাঝে ৪ ওভারে মাত্র ১৯ রান দিয়ে গেছেন রুবেল হোসেন। নিরোশান ডিকভেলা (১৬) হঠাৎ আবিস্কার করেন তার স্টাম্প উড়ে গেছে। প্যানিক লঙ্কান দল এবার আরো বিপদে এই ম্যাচের অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমালকে (২৮) রান আউটে হারিয়ে। ১০৬ রানে ৫ উইকেট।

আগের ম্যাচের প্রথম ওভারে তিন বলের মধ্যে ২ উইকেট নিয়ে সাকিব ম্যাচ জয়ের ভিত গড়েছিলেন। আর এবার এলেন ১৮তম ওভারে। ম্যাচের ২৬তম ওভারটি লঙ্কানদের রীতিমতো খুন করে ফেলার মতো। পর পর দুই বলে সাকিব তুলে নেন আসেলা গুনারত্নে (১৬) ও ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গাকে। আর কি থাকে?

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

বাংলাদেশ : ৩২০/৭ (৫০ ওভার) (তামিম ৮৪, বিজয় ৩৫, সাকিব ৬৭, মুশফিক ৬২, মাহমুদউল্লাহ ২৪, সাব্বির ২৪*, মাশরাফি ৬, নাসির ০, সাইফ ৬*; লাকমল ০/৬০, প্রদিপ ২/৬৬, ধনঞ্জয়া ১/৪০, থিসারা ৩/৬০, গুনারত্নে ১/৩৮, হাসারাঙ্গা ০/৫১)।

Top