আপডেটঃ
“সংসদ নির্বাচন” ইসির ক্ষমতার প্রয়োগ দেখতে চাইহাঁটলে ওজন কমে, কিন্তু কতক্ষণ?টিভিতে ফেরদৌস-মৌসুমীর ‘পোষ্ট মাস্টার ৭১’জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধাকে পাচ্ছেন কোটি টাকা?কালো টাকায় মনোনয়ন বাণিজ্যআওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের সত্যিকারের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন হয়: শেখ আফিল উদ্দিন এমপিপ্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছানোর লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে আওয়ামীলীগ সরকার: সিরাজুল হক মঞ্জু৪৮তম বিজয় উদযাপনে প্রস্তুত জাতীয় স্মৃতিসৌধবিএনপি নেতাকর্মীদের গণগ্রেপ্তার বন্ধ না করলে কঠোর আন্দোলন : শাহজাহান চৌধুরীআ’লীগের জুলুম-নির্যাতনের জবাব দিতে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত ধৈর্য ধরুন : লুৎফুর রহমান কাজলউখিয়া-টেকনাফের সাধারন জনগনের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে নৌকার প্রার্থী শাহীনক্রিকেটের মতো রাজনীতিতেও অবদান রাখতে চান মাশরাফি১৯ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের নিয়মিত বিচারিক কার্যক্রম বন্ধসেনাবাহিনীকে গ্রেপ্তারের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে : সিইসি

তীব্র শীতের কাঁপুনি দূর করতে চান?

Winter.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ দেশজুড়ে বইছে হাড় কাঁপানো শৈত্যপ্রবাহ। শীতটা বেশ জাঁকিয়েই বসেছে কিছুদিন যাবত। ঠাণ্ডায় জমে যাওয়ার মত অবস্থা। যা গত ৫০ বছরের মধ্যে দেশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড।

সোয়েটারের ওপর জ্যাকেট আর জ্যাকেটের ওপরে শাল পরেও যেন শীত কমছে না। বাইরে বেরুনোর কথা শুনলেই লেপের নিচে যাওয়ার কথা মাথায় আসে। কিন্তু কাজের ব্যস্ততায় বাইরে তো বের হতেই হবে। এই তীব্র শীতের মধ্যে নিজেকে কি একটু উষ্ণ রাখতে চান না? শরীররের ভেতরে আপনাকে উষ্ণতা যোগাতে পারে একমাত্র খাবার। শীতকালে শরীরকে গরম রাখার জন্য নির্দিষ্ট খাবারগুলো অত্যন্ত উপযোগী।

মরিচ
মরিচের মধ্যে ক্যাপসাসিন নামে এক ধরনের উপাদান থাকে যা ত্বকে জ্বালা অনুভূতি দেয় ও শরীরকে শীতকালে গরম রাখে।

পেঁয়াজ
আপনাকে ঘামিয়ে দিতে পেঁয়াজের বড় ভূমিকা রয়েছে। পেঁয়াজ শরীরকে গরম রাখার পাশাপাশি শীতজনিত অনেক রোগ থেকে মুক্তি দেয়।

আদা চা
শীতের সময় নিজেকে গরম রাখার সবচেয়ে সহজ উপায় হল এক কাপ আদা চা। এই আদা চা খাওয়ার পরেই আপনি পার্থক্যটা বুঝবেন। আগের চেয়ে গরম লাগতে শুরু করবে।

হলুদ
হলুদ অ্যান্টিসেপটিক হওয়ার পাশাপাশি হলুদে এমন উপকরণ থাকে যাতে শীতের সময় ঠান্ডাটা কম লাগে। তাই শীতের সময় সব রান্নাতেই হলুদ দিন।

মশলাদার স্যুপ
শীতের সন্ধ্যায় গরম স্যুপ শরীরকে গরম রাখতে সাহায্য করে। সঙ্গে সবজির পুষ্টি জোগাতে সাহায্য করে।

মশলা
মশলাদার রান্না শরীরকে গরম রাখে। তা বলে বেশি পরিমাণে মশলাদার খাবার খাওয়া উচিত নয়। শরীর গরম করে আপনার স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে। তাই মশলাদার খাবার খেলে অনুপাতে পানি খেতে হবে।

শুকনো ফল
খেজুর, অ্যাপ্রিকট ও অন্যান্য শুকনো ফল আপনার শরীরের যন্ত্রসমূহকে গরম ও স্বাভাবিক রাখে।

লাল মাংস
খাসি ও গরুর মাংস শরীরের তাপমাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে। তবে তা বেশি পরিমাণে খাওয়া উচিত নয়।

Top