আপডেটঃ
চকরিয়ায় পুলিশের অভিযানে মদ ও গাঁজা উদ্ধার:নারীসহ আটক-৪চকরিয়ায় পুলিশের আয়োজনে ডুলাহাজারা ডিগ্রী কলজে মাদক ও বাল্যবিবাহ নিরোধে সচেতনতামূলক সভা অনুষ্টিত       নাইক্ষ্যংছড়িতে ফের অপহরণ চক্রের আর এক সদস্য আটকসরাসরি এলএনজি গ্যাস নিয়ে কক্সবাজারের মহেশখালিতে বড় জাহাজ ‘এক্সিলেন্স’চট্টগ্রাম বাঁশখালিতে র‌্যাবের গুলি বিনিময়ে ধর্ষক নিহতচট্টগ্রামে বন্ধন লায়ন্স ও লিও ক্লাবের নতুন কমিটি গঠিতচকরিয়ায় মাদক ও চুরিতে বাঁধা দেয়ায় দুবৃর্ত্তের হামলায় কুপিয়ে জখম: আহত-৩চকরিয়ায় বনবিভাগের অভিযানে চারটি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদচকরিয়ায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম: নির্বাহী প্রকৌশলীসহ চারজনকে নোটিশসরকারের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকলে ২০৪১  সালে ভিশন প্রত্যাশা পূরণে উন্নত রাষ্ট্র পরিণত হবে জেলাজেলা প্রশাসক-কামাল হোসেনকক্সবাজারে হাইওয়ে পুলিশের অভিযান,২০ হাজার পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ২ঈদগাঁওতে একটি ব্রীজের অভাবে দূর্ভোগে পড়েছে ভাদীতলা ও শিয়াপাড়াবাসীটেকনাফ বাহারছড়ায় ৮ বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যামগনামা লঞ্চঘাট চ্যানেলে পলিথিন মুড়ানো নবজাতকের লাশ উদ্ধারজালালাবাদের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে ইউএনও বরাবরে অভিযোগ

চট্টগ্রামে ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

Law.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ চট্টগ্রামে দুইবোনকে অপহরণের পর ধর্ষণের চেষ্টার অপরাধে ৬ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুুনাল-২ এর বিচারক মো. মোতাহির আলী।
দণ্ডিত আসামিরা হলো আরমান প্রকাশ ফরমান (৩১), ফরিদ প্রকাশ এলজি ফরিদ (৩৪), মো.শাহেদ (৩১), আনোয়ার হোসেন (৩২), শাহাবউদ্দিন (৩১) এবং মো. রুবেল (৩১)। এরা সবাই পলাতক আছেন।

বৃহস্পতিবার এ রায় দেন বলে জানান ট্রাইব্যুনালের পিপি এমএ নাসের।

তিনি বলেন, আসামিদের প্রত্যেককে অপহরণের দায়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৭ ধারায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানা দিতে না পারলে আরো তিন মাস কারাভোগ করতে হবে। এছাড়া ধর্ষণের চেষ্টার দায়ে একই আইনের ৯ (৪) এর (খ) ধারায় ১০ বছরের কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০০৫ সালের ২৯ নভেম্বর দুপুর ১টার দিকে লোহাগাড়া উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের ফরেস্ট অফিসের সামনে থেকে দুই কিশোরীকে জোরপূর্বক সিএনজি অটোরিকশায় তুলে নেয় দুর্বৃত্তরা। তারা পরস্পরের চাচাতো বোন। ওষুধ কিনতে গিয়ে দুইজন অপহরণের শিকার হন। অপহরণের পর তাদের নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে দুর্বৃত্তরা ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এই ঘটনায় ৩১ নভেম্বর লোহাগাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। ২০০৬ সালের ২৮ জানুয়ারি আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। ২০০৭ সালের ২৫ জুলাই অভিযোগ গঠনের পর রাষ্ট্রপক্ষ চারজনকে সাক্ষী হিসেবে আদালতের সামনে উপস্থাপন করে।

Top