আপডেটঃ
রাত পোহালেই কক্সবাজার অনলাইন সাংবাদিকদের মিলন মেলাআমি আমার শহরের লিডার: আইভীসু-শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে – নোমান হোসেনজনবল সংকট ফুলছড়ি রেন্জ বেপরোয়া বনদস্যুরাখুটাখালীর পীর হাফেজ মাওলানা আবদুল হাই হুজুর আর নেইরামুর অবকাশ কমিউনিটি সেন্টারে ইউএনও’র নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালতের  অভিযান ॥ মাদক ও জুয়ার সামগ্রীসহ আটক ৪মোমেন হওয়ার জন্য পরিপূর্ণ ইসলামে প্রবেশ করুনডুলাহাজারা ইসলাম প্রচার ইসলামী তরুণ সংঘের নতুন কমিটি গঠিতনাইক্ষ্যংছড়িতে ৪ জন অপহরনঃ মুক্তিপন দাবীমহেশখালীতে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যানিজ দেশে ফিরে যেতে রোহিঙ্গাদের ছয় দফা পূরণ করতে হবেনাইক্ষ্যংছড়ি দোছড়িতে চারজন কৃষক অপহরনচুনতির বিভিন্ন স্কুলে ৯৭ ব্যাচ এর উদ্যোগে দরিদ্র শিশুদের মাঝে পোশাক বিতরণঃকর্ণফুলীতে ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী গ্রেফতার,ছাড়িয়ে নিতে জোর তদবিরঃশ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে দিল টাইগাররা

“দাসিয়ারছড়া বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়” সাফল্যে চমকঃ

daria.jpg

বিশেষ প্রতিবেদকঃ

শিক্ষার্থীদের আলোর পথ দেখাতে প্রতিষ্ঠিত হওয়া বিদ্যালয়টি হলো “দাসিয়ারছড়া বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়” সাফল্যের সাথে ২য় বৎসর শেষে ৩য় বৎসরে পদার্পণ করতে যাচ্ছে বিদ্যালয়টি।

বিদ্যালয়টি ক্রমানই ধাপে ধাপে শিক্ষার মান বৃদ্ধি পাচ্ছে। দাসিয়ারছড়ার প্রানকেন্দ্রে অবস্থিত বিদ্যালয়টি।

উল্লেখ্য দেশনেত্রী শেখ হাসিনা যেখানে পদার্পণ করেছেন তার সম্মানে সেইখানেই স্থাপন করা হয় বিদ্যালয়টি।

গত দুই বছরের তুলনায় এবার ষষ্ঠ শ্রেনীতে ভর্তি হয়েছে দ্বিগুন শিক্ষার্থী।

শিক্ষার্থীদের উপর শিক্ষকগনের বন্ধুত্বসুলভ আচরন ও তাদের পড়াশোনার পদ্ধতি দেখে অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের এই প্রতিষ্ঠানটিতে ভর্তি করাচ্ছেন।

কিন্তু দুঃখ জনক ব্যাপার হলো বিদ্যালয়টি এখনো তাদের নিজ প্রতিষ্ঠানের নামে শিক্ষার্থীদের নিম্ন মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে পারছেনা।

পারছেনা সরকার পক্ষ থেকে কোন সাহায্য সহযোগিতা। এত ভালো মানের বিদ্যালয় হওয়া স্বত্বেও প্রতিষ্ঠানটি সরকারী সহযোগিতা থেকে বঞ্চিত।

এখন দাসিয়ারছড়া বাসীর একটাই চিন্তার উদ্ভব হচ্ছে, যে স্থানে দেশনেত্রী মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা পদার্পণ করেছেন তার সম্মান স্বরুপ স্থাপিত বিদ্যালয়টির ভবিষ্যৎ নিয়ে।

বিদ্যালয়টির ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ শাহিনুর রহমান ও এলাকার ইংরেজি শিক্ষক মোঃ জাকির হোসেন বলেন, আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভালোবাসি বলে তাকে আমরা সম্মানের সাথে বিদ্যালয়টির মাধ্যমে তাকে স্মরণ রাখতে চাই বলেই তার পদার্পণকৃত স্থানে বিদ্যালয়টির স্থাপন করেছি।

তাই আমরা চাচ্ছি প্রতিষ্ঠানটিকে সরকারের দৃষ্টিপাত করা অতান্ত জরুরী।

এটা শুধু প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষকগনের চাওয়া নয় বরং গোটা দাসিয়ারছড়া বাসীর প্রানের দাবি বিদ্যালয়টির উপর সরকারের দৃষ্টিপাত আকর্ষণ করেন তারা।

অতিশীঘ্রই যেনো সরকার প্রাথমিক শিক্ষার এ স্কুলটিকে এমপিও ভুক্ত বা বেতনে অন্তর্ভুক্ত করে শিক্ষার পথ সুগম করে এমনটা প্রত্যাশা জনগণের।

Top