আপডেটঃ
কক্সবাজারে ইপসা’র নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ক প্রশিক্ষণ সভা অনুষ্ঠিতমিডিয়ার হাত বেঁধে দিয়েছে সরকার : নজরুলদলে নেই মুশফিক-মোস্তাফিজ, অভিষেক দু’জনেরগোলদিঘীর সৌন্দর্য্য বর্ধন, মাস্টার প্ল্যান ও ইমারত নির্মাণ বিধিমালা- ১৯৯৬ নিয়ে ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের জনসাধারণের সাথে কউকের মতবিনিময় সভা সম্পন্নকর্ণফুলীতে সিপিপি স্বেচ্চাসেবক সম্মাননা-২০১৮ এর জন্য মনোনিত হলেন যারাচট্টগ্রামে গ্ল্যাস্কো কারখানার শ্রমিকদের মহাসড়ক অবরোধকক্সবাজারে ‘শেখ হাসিনার উন্নয়নের গল্প’ প্রচারে ছাত্রনেতা ইশতিয়াকমাঝির কাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুর্যোগ মোকাবেলা শীর্ষক মতবিনিময় সভায় বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধিচট্টগ্রাম কলেজে অস্ত্র হাতে মহড়া:শংকিত সাধারন শিক্ষার্থীরাচট্টগ্রামে এক ওসির বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগরামুতে শহীদ লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা-২১ সেপ্টেম্বরবিএনপির ১৭৩ প্রার্থী প্রায় চূড়ান্তরামুর গর্জনিয়ায় বজ্রপাতে একই পরিবারের নারীসহ আহত ৫কক্সবাজারে প্রথম নির্মিত হচ্ছে সি,আই কোম্পানি ইন্ডাস্ট্রিজেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনার জন্য ইওসি স্থাপন

ট্রাম্প আগুন নিয়ে খেলছেন: ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট

Filytin.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ জেরুজালেম ইস্যুতে একপেশে সিদ্ধান্ত নেয়ার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কড়া সমালোচনা করেছেন ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস।

মাহমুদ আব্বাস হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ট্রাম্প আগুন নিয়ে খেলছেন। ফিলিস্তিনের সাধারণ জনগণ আপনার সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করেছে।

তিনি এসময় জেরুজালেমকে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের রাজধানী বলেও উল্লেখ করেন।

এদিকে বিশ্বনেতাদের এবং জাতিসংঘসহ বিভিন্ন সংস্থার আহ্বান অগ্রাহ্য করে একপেশে সিদ্ধান্তে জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তার অবস্থান হারিয়েছে বলে উল্লেখ করেছে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ।

তাদের মতে, ফিলিস্তিন-ইসরাইল শান্তি প্রক্রিয়ায় আর কোনো ভূমিকা রাখার অবস্থানে নেই যুক্তরাষ্ট্র। তারা মধ্যস্থতাকারীর অবস্থান হারিয়েছে।

জেরুজালেমকে রাজধানী এবং তেল আবিব থেকে সেখানে দূতাবাস সরানোর ঘোষণার মাধ্যমে ট্রাম্প ইসরাইলকে পুরস্কৃত করেছে বলে মন্তব্য করেছেন মাহমুদ আব্বাস। তিনি বলেন, এই পুরস্কার প্রদানের মাধ্যমে ফিলিস্তিনিদের ভূমি দখলকে বৈধতা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এতে শান্তি নয় সংঘাত বাড়বে।

এদিকে ট্রাম্পের ঘোষণার প্রতিবাদে তিন দিন বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন সহ প্রতিবাদ অব্যাহত রাখবেন ফিলিস্তিনিরা।

১৯৪৮ সালে আরব-ইসরাইল যুদ্ধের পর জেরুজালেমের পশ্চিমাংশ দখল করে নেয়া হয়। পরে ১৯৬৭ সালে সিরিয়া, মিশর ও জর্ডানের সঙ্গে যুদ্ধের পর পূর্বাংশ দখল করে নেয় ইসরাইল।

দখলের পর থেকেই ঐতিহাসিকভাবে পবিত্র এ শহরটিতে নিজেদের পুরো কর্তৃত্ব খাটানোর চেষ্টা করছিল ইসরাইল। এই ইস্যুতে অসংখ্যবার ইসরাইলি ও ফিলিস্তিনি, ইহুদি, খ্রিস্টান ও মুসলিমদের পবিত্র ভূমিতে আগুন জ্বলতে দেখে গেছে।

১৯৯০, ১৯৯৬, ২০০০ সালে এবং সম্প্রতি ২০১৭ সালে আল-আকসা মসজিদে প্রবেশের ক্ষেত্রে ফিলিস্তিনিদের পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ইসরাইলি পুলিশের মেটাল ডিটেক্টর বাসানোর জেরে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঘটেছে।

Top