নভেম্বরে ৬২ কোটি টাকার চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য জব্দ করেছে বিজিবি

FB_IMG_1512477312983.jpg

 

আলোকিত ডেস্কঃ

 

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) গত মাসে দেশের সীমান্ত এলাকাসহ অন্যান্য স্থানে অভিযান চালিয়ে ৬২ কোটি ৪৪ লাখ ৭৪ হাজার টাকা সমমূল্যের বিভিন্ন প্রকার চোরাচালান ও মাদক দ্রব্য জব্দ করেছে। এ নিয়ে গত ১১ মাসে (জানুয়ারি-নভেম্বর) ১ হাজার ১৬২ কোটি ৫৮ লাখ ৬৬ হাজার ১৯৯ টাকা সমমূল্যের বিভিন্ন প্রকার চোরাচালান ও মাদক দ্রব্য জব্দ করছে দেশের সীমান্ত রক্ষায় নিয়োজিত এ বাহিনীটি। গতকাল সোমবার বিজিবি’র জনসংযোগ কর্মকর্তা মুহম্মদ মোহসিন রেজা স্বাক্ষরিত পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জব্দকৃত মাদকের মধ্যে ৩ লাখ ৬৩ হাজার ৭৮৪ পিস ইয়াবা, ৮ হাজার ৪৫৭ বোতল বিদেশী মদ, ২৮৯ লিটার বাংলা মদ, ৪ হাজার ২০১ ক্যান বিয়ার, ২০ হাজার ৩৬১ বোতল ফেনসিডিল, ১ হাজার ৪৫০ কেজি গাঁজা, ৬৮৮ গ্রাম হেরোইন, ৭ হাজার ৬৮০টি এ্যানেগ্রা/সেনেগ্রা ট্যাবলেট, নেশাজাতীয় ইনজেকশন ১ হাজার ৬৫৫ এবং ৬ লাখ ৪২ হাজার ১৭৮টি অন্যান্য ট্যাবলেট রয়েছে। চোরাচালান দ্রব্যের মধ্যে ১৩ হাজার ৫টি শাড়ী, ২ হাজার ৩৬৬টি থ্রি-পিস/শার্টপিস, ৮ হাজার ৬৫৮ মিটার থান কাপড়, ২ হাজার ৭৮৯টি তৈরী পোশাক, ২০ হাজার ১৬৫ সিএফটি কাঠ ও ৩ কেজি ৮৩৪ গ্রাম স্বর্ণ রয়েছে। এছাড়া একই সময়ে উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ১৮টি পিস্তল, ২টি বন্দুক, ৬০টি গুলি এবং ১২টি ম্যাগাজিন। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, গত মাসে অভিযান চালিয়ে মাদক পাচারসহ অন্যান্য চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে ১৪৬ জন এবং অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে ২২২ জন বাংলাদেশী নাগরিককে আটকের পর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। এছাড়া ভারত থেকে অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে ৭ জন ভারতীয় নাগরিককে আটক করা হয়। তাদের মধ্যে ৩ জনকে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে এবং ৪ জনকে বিএসএফ’র কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Top