আপডেটঃ
সব সদস্য রাষ্ট্র একসঙ্গে কাজ করলে শান্তি নিশ্চিত হয় : স্পিকারনির্বাচন কবে, জানতে চাইলেন মার্কিন কূটনীতিকসভাপতি কমল এমপি, সাধারণ সম্পাদক হুদা বঙ্গবন্ধু পরিষদ কক্সবাজার জেলা কমিটি অনুমোদনযশোরে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহতহিলিতে জাতীয় ইদুঁর নিধন অভিযানের উদ্বোধনসৌদি কনস্যুলেট খাসোগিকে খুঁজবেন তুর্কি তদন্তকারীরালালন শাহের ১২৮ তম তিরোধান দিবসপর্যটক ও পূণ্যার্থীদের দুর্ভোগ… রামু চাবাগান- উত্তর মিঠাছড়ি সড়কে অসংখ্য গর্ত ॥ সংস্কার জরুরীচট্টগ্রামে ঝুঁকিপূর্ণ ১৩টি পাহাড়ে অবৈধ বসবাসকারীকে সরানো যাচ্ছেনাকর্ণফুলীতে চলছেনা গাড়ি: আরাকান মহাসড়কে ধর্মঘটফেসবুকে নায়িকা সানাই এর ২৭৮টি ভুয়া অ্যাকাউন্ট,থানায় জিডিসেন্টমার্টিনে রাত্রিকালীন নিষেধাজ্ঞা: পর্যটন খাতে নেতিবাচক প্রভাবের আশঙ্কাআশা ইউনিভার্সিটিতে সুচিন্তা’র জঙ্গিবাদবিরোধী সেমিনারশাহপরীরদ্বীপে ক্ষতিগ্রস্ত ৩৪ পরিবার পেল নগদ টাকাসহ ৩০ কেজি করে চালবেনাপোল কাস্টমসে ১কেজি ৭শ গুড়ো সোনা সহ আটক ১

শারীরিক সম্পর্ক স্ত্রীর কাছে অপরাধের শামিল, কি করলেন স্বামী!

Life.jpg

 ওয়ান নিউজ ডেক্স:  যৌনতা নিয়ে খোলামেলা আলোচনা হয়তো অনেক সমস্যার সমাধান করতে পারে৷ কিন্তু একবিংশ শতাব্দীতে দাঁড়িয়ে যৌনতা নিয়ে আজও রক্ষণশীল ভারত৷ তাই ছোটবেলা থেকেই ক্রমাগত চেপে থাকতে থাকতে ভারতীয় নারীদের ভবিষ্যত হয়ে ওঠে চরম কষ্টের৷ শারীরিক সম্পর্ককে একটি চরম অন্যায় বলে মানতে শুরু করেন অনেক নারী৷ এমনই একটি বিষয় নিয়ে সম্প্রতি মুখ খুললেন ভারতীয় এক দম্পতি৷

নিজেদের বিবাহিত জীবনের কথা বলতে গিয়ে ভেঙে পড়েন স্বামী৷ প্রতিটি কথায় কথায় স্ত্রীকে ভালোবেসেও ছেড়ে থাকার যন্ত্রনাটা বেরিয়ে আসছিল তার কথায়৷ দুই বছর আগে নিয়ম মেনে বিয়ে হয় তার৷ তাদের দু’জনের একে অপরের প্রতি ভালোবাসায় কোনও কমতি ছিলনা৷ এমনকি পরপুরুষ কিংবা অন্য নারী নিয়েও কোনও সমস্যা ছিল না তাদের মধ্যে৷ শুধুমাত্র সমস্যা একটাই ছিল৷ তা হলো যৌনতা বা শারীরিক সম্পর্ক৷

তিনি জানান, প্রায় প্রতিদিনই একের পর এক চমক দিয়ে স্ত্রীয়ের কাছে যাওয়ার চেষ্টা করতেন স্বামী৷ কিন্তু কোনও কিছুই যেন তার স্ত্রীকে উত্তেজিত করত না৷ বিয়ের পর আটমাস কেটে যেতেও তাদের যৌন সম্পর্কে কোনও পরিবর্তন ঘটেনি৷ কিছু কিছু সময় দেখে মনে হত যে তার স্ত্রী জোর করে বাধ্য হচ্ছে৷ ধীরে ধীরে চূড়ান্ত ভেঙে পরেন তিনি৷ দিশেহারা হয়ে পরতেন কিভাবে তিনি তার স্ত্রীকে কাছে পাবেন৷

এরপর হঠাৎই একদিন কান্নায় ভেঙে পরেন তার স্ত্রী৷ স্বামীর সঙ্গে মনোমালিন্য হওয়ায় তিনি মন থেকে যে একেবারে কুঁকড়ে যাচ্ছিলেন সেটিই কান্নায় বেরিয়ে আসছিল যেন বারবার৷ এরপরই তারা দুজনে একসঙ্গে সিদ্ধান্ত নেন যে, তারা মনোরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে যাবেন৷ এরপর শুরু হয় কাউন্সেলিং৷ কাউন্সেলিংয়ের পরই বেরিয়ে আসে আসল সত্যিটা৷

জানা যায়, তার স্ত্রী রক্ষণশীল পরিবারে মানুষ হয়েছিলেন ছোট থেকেই৷ আর ভারতের মধ্যবিত্ত পরিবারে রক্ষণশীল পরিবারে ছোট থেকেই মেয়েদের কানে মন্ত্রের মতন বলা হয় যে, শারিরীক সম্পর্ক একটি অত্যন্ত গুরুতর অপরাধ৷

এই ঘটনা সামনে আসার পর তারা তাদের বিবাহিত জীবনের পাট চুকিয়ে দেন। তারা আজ খুব খুশি৷ দুজনেই দুজনের ক্যারিয়ারে সাফল্যের শীর্ষে পৌঁছে গিয়েছেন বলে জানা গেছে৷ সুখী দাম্পত্য জীবনের একটি অন্যতম বিষয় শারিরীক সম্পর্ক৷ ছোট থেকেই যদি সন্তানকে আপনি এই বিষয়টির সঙ্গে সহজসরলভাবে মানিয়ে নেওয়াতে পারেন তাহলে আপনার সন্তানদের ভবিষ্যতটাই সুখের হবে৷

Top