বোরকা পরে দর্শকদের সঙ্গে বসে ছবি দেখব

Bubly.jpg
ওয়ান নিউজ বিনোদন ডেক্সঃ ঢাকাই ছবির আলোচিত নায়িকা শবনম বুবলী। শাকিব খানের বিপরীতে অভিষেক ছবি দিয়েই দর্শকদের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছেন এ নায়িকা। এখনও শাকিব খানের সঙ্গে জুটি বেঁধে একের পর এক ছবি উপহার দিয়ে যাচ্ছেন। এই ঈদেও তার অভিনীত দুটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। ঈদে তার অভিনীত মুক্তিপ্রাপ্ত ছবির হালহকিকত ও অন্যান্য প্রসঙ্গ নিয়ে আজকের ‘হ্যালো…’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি
কোরবানির গরুর নাম পঙ্খিরাজ রাখলেন কেন?
আগে থেকেই আমার বাড়িতে একটি রেওয়াজ চালু রয়েছে। কোরবানির আগে যে গরুটি কিনে আনে তাকে একটি নাম দিই আমরা। এই যেমন গতবারের গরুটির নাম দিয়েছিলাম যুবরাজ, তার আগের বছরেরটির নাম শাহেন শাহ। এবার নাম দিয়েছি পঙ্খিরাজ।

ঈদে দুটি ছবি মুক্তি পেল আপনার। হলে গিয়ে ছবি দুটি দেখেছেন?

এখনও দেখা হয়নি। এই ঈদে একটু বেশি ব্যস্ততা ছিল। এখন ব্যস্ততা কমেছে। তাই আজ বা কাল ছোট ভাইকে নিয়ে হলে গিয়ে ছবি দুটি দেখব।

ছবি দেখতে কোন হলে যাচ্ছেন?

গাজীপুর বা উত্তরার আশপাশের কোনো হলে যাব। কারণ এ হলগুলোতে ঈদে দর্শকদের সমাগম বেশি হয়। টিকিটের জন্য দীর্ঘ লাইন থাকে। যা দেখলেই মনে প্রশান্তি আসে। তবে বুবলী হয়ে যাব না, বোরকা পরে লুকিয়ে যাব। আড়ালে থেকে দর্শকদের সঙ্গে বসে ছবি দেখব।

চারদিক থেকে ছবি দুটির বিষয়ে কেমন মন্তব্য আসছে?

আমি আগে থেকেই বলে আসছি ‘রংবাজ’ একটি মাসালা ছবি। নাচে গানে ভরপুর বিনোদনের একটি প্যাকেজ। ছবি দেখে দর্শকরা বেশ আনন্দ পাবেন। এখন সেটিরই প্রমাণ পাচ্ছেন দর্শকরা। আর ‘অহংকার’ একটি গল্পনির্ভর ছবি। বেশ টুইস্ট রয়েছে এতে। ছবিটির জন্য অনেক সিনিয়র শিল্পীরা ফোন করে প্রশংসা করে বলছেন, নায়িকা তো অনেকেই হচ্ছে কিন্তু অহংকার ছবিটি দেখার পর মনে হয়েছে তুমি অভিনেত্রী হওয়ার চেষ্টা করছ। নিজের সম্পর্কে এ কথাগুলো শোনার পর বেশ ভালো লাগছে। কাজের দায়িত্ব আরও বেড়ে গেছে।

নোয়াখালীর ভাষা শেখার মিশন কতদূর?

শেখার শেষ নেই। এখনও চলছে। তবে আমার বাবা-মা দু’জনই নোয়াখালীর হওয়ায় বিষয়টি অনেক সহজেই আয়ত্বে নিয়ে আসতে পারছি। পরিবারেই নিজের আঞ্চলিক ভাষা নিয়ে চর্চা করছি। বিষয়টি আমার কাছে অনেক গর্বের মনে হচ্ছে।
অনেকেই বলেন অভিনয়েও আপনার অনেক জড়তা চোখে পড়ে… ৮এখনও অভিনেত্রী হতে পারিনি। অভিনয় অনেক সাধনার বিষয়। এখনও শেখার পথে আছি। প্রতিনিয়তই শিখছি, শেখার চেষ্টা করছি।
Top