আপডেটঃ
পৃথিবীজুড়ে এত টি-টোয়েন্টি লিগ!ডায়াবেটিসের সম্ভাবনা কমায় কফি!মনেহয় সেতু মন্ত্রী বিএনপি’রও নীতি নির্ধারকহাজী এম এ কালাম ডিগ্রী কলেজের ২০বছরের পুরনো বেদখলীয়  জমি  উদ্ধার  হয়েছে আজ।ডুলাহাজারায় থামছে না বনভূমির অবৈধ দখল বাণিজ্য!রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবহেলিত শিশুদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করলেন কেন্দ্রীয় ছাত্রনেতা এস,এম জাকির হোসাইন:রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের উখিয়ারঘোনাতে  ৮ম শ্রেণীর মাদ্রাসা ছাত্রী অপহরণ। বিভিন্ন পদে নিয়োগ দেবে ইউএনডিপি৭ মার্চ স্মরণকালের সব রেকর্ড ভাঙবে আ’লীগলাইসেন্স পাওয়ার ১৫ মিনিটের মধ্যেই ফোর-জি চালু করবে গ্রামীণফোনপুরুষের অনুমতি ছাড়াই ব্যবসা করতে পারবেন সৌদি নারীরাসার্টিফায়েড কপি না পাওয়ায় ‘কারো’ ইশারা দেখছে বিএনপিযুক্তরাজ্যে কার্গো পরিবহনে বাংলাদেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারইরানে ৬৬ আরোহী নিয়ে যাত্রীবাহী উড়োজাহাজ বিধ্বস্তআগামীকাল বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

ফালুর স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

Doduk.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ ৩ কোটি ৯৩ লাখ ৮৮ হাজার ৪৭২ টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মোসাদ্দেক হোসেন ফালুর স্ত্রী মাহবুবা সুলতানার বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বৃহস্পতিবার রাজধানীর রমনা থানায় তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, দুদক গত ৩১/০৮/২০১৬ সালে মিসেস মাহবুবা সুলতানার নামে সম্পদ বিবরণী জারির আদেশ দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে মিসেস মাহবুবা সুলতানার পক্ষে তার স্বামী মোহাম্মদ মোসাদ্দেক আলী (ফালু) গত ১৮/০৯/২০১৬ তারিখে সম্পদ বিবরণী জারির বর্ণিত স্মারকে স্বাক্ষর করে উক্ত স্মারকসহ সম্পদ বিবরণী ফর্ম-০১ ফর্দ (ফর্ম নং০০০১৯১১) গ্রহণ করেন।

এরপর বাহবুবা সুলতানা বিগত ০৩/১০/২০১৬ তারিখে দুদকে সম্পদ বিবরণী দাখিল করেন।

দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে তিনি স্থাবর সম্পদের পরিমাণ ৩ কোটি ৩১ হাজার ১০৬ টাকা ও অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ ৬ কোটি ৫৭ লাখ ৫০ হাজার ৭০০ টাকাসহ মোট ৯ কোটি ৫৭ লাখ ৮১ হাজার ৮০৬ টাকার স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের হিসাব দাখিল করেন। যার মধ্যে দায়-দেনার পরিমাণ ১ কোটি ১ লাখ ২০ হাজার টাকা দেখানো হয়েছে।

এরপর দুদকের অনুসন্ধানে মাহবুবা সুলতানা কর্তৃক দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণী অনুযায়ী স্থাবর সম্পদের পরিমাণ ৩ কোটি ৩১ লাখ ১০৬ টাকা ও অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ ৬ কোটি ৫৭ লাখ ৫০ হাজার ৭০০ টাকা এবং ১৯৯৫-৯৬ করবর্ষ হতে ২০১৬-১৭ করবর্ষ পর্যন্ত মোট ব্যয় ৯৭ লাখ ৯৪ হাজার ১৭৮ টাকাসহ মোট ১০ কোটি ৫৫ লাখ ৭৫ হাজার ৯৮৪ টাকা সম্পদ পাওয়া যায়।

এজাহারে আরো বলা হয়েছে, অনুসন্ধানকালে প্রাপ্ত তথ্য ও দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণী অনুযায়ী তার নামে অর্জিত ৯ কোটি ৫৭ লাখ ৮১ হাজার ৮০৬ টাকার সম্পদের মধ্যে আয়ের উৎসের মধ্যে ছিল:

১. মৎস চাষ ও গরুর খামার খাতে আয়ের ১ কোটি ২৫ লাখ ৩৬ হাজার ৮৬৩ টাকার বিষয়ে মৎস্য ও পশুপালন অধিদপ্তর কর্তৃকপ প্রদত্ত কোনো নিবন্ধন/পরিদর্শন প্রতিবেদনসহ বিনিয়োগের পক্ষে কোনো তথ্য প্রমাণ, এমনকি তার নামে কোনো মৎস্য খামারের অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি।

২, অন্যান্য উৎস হতে প্রদর্শিত আয়ের ১ লাখ ৭৪ হাজার ২৮২ টাকার সমর্থনে কোনো দালিলিক প্রমাণাদি পাওয়া যায়নি।

৩. ব্যবসায় বিনিয়োগকৃত ২ কোটি টাকার আয়ের সমর্থনে কোনো দালিলিক প্রমাণদি পাওয়া যায়নি।

৪. বনানীর বাড়িতে বিনিয়োগকৃত ৬৬ লাখ ৭৭ হাজার ৩২৭ টাকার আয়ের সমর্থনে কোনো দালিলিক প্রমাণাদি পাওয়া যায়নি।

ফলে ৪টি আয়ের উৎসের মোট ৩ কোটি ৯৩ লাখ ৮৮ হাজার ৪৭২ টাকার সমর্থনে সঠিকভাবে হিসাবাদি/রেকর্ডপত্র প্রদর্শন করতে সক্ষম হননি। যা তার জ্ঞাত আয়ের সাথে অসঙ্গতিপূর্ণ সম্পদ মর্মে অনুসন্ধানকালে পরিলক্ষিত হয়।

এ অবস্থায় অনুসন্ধানকালে প্রাপ্ত তথ্যাদি ও রেকর্ডপত্র অনুযায়ী মাহবুবা সুলতানা, স্বামী মোহাম্মদ মোসাদ্দেক আলী (ফালু), বর্তমান ঠিকানা, বাড়ি নং- ৬৮, রোড নং-০৫, পুরাতন ডিওএইচএস, বনানী, ঢাকা, স্থায়ী ঠিকানা : ৭৯৭, দক্ষিন শাহজাহানপুর, ঢাকা কর্তৃক দুনীতি দমন কমিশনে দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে প্রদর্শিত ৯ কোটি ৫৭ লাখ ৮১ হাজার ৮০৬ টাকার সম্পদের মধ্যে ৩ কোটি ৯৩ লাখ ৮৮ হাজার ৪৭২ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও তা নিজ ভোগ দখলে রেখে ভিত্তিহীন এবং মিথ্যা তথ্য সম্বলিত সম্পদ বিবরণী দাখিল করে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪ এর ২৬ (২) ও ২৭ (১) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন বিধায় তার বিরুদ্ধে বর্ণিত ধারায় একটি নিয়মিত মামলা রুজু করার অনুরোধ করা হল।

Top